বিএনপি আসলে ভোট পেছাবে সর্বোচ্চ নয়দিন

0
55
Print Friendly, PDF & Email

বিএনপি আসলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট এক সপ্তাহ পেছানোর প্রাথমিক পরিকল্পনা করছে নির্বাচন কমিশন। তবে বিএনপি দাবি জানালে সর্বোচ্চ আরও দুইদিন সময় দেবে কমিশন।

নির্বাচন কমিশনার আবু হাফিজ ঢাকাটাইমস টোয়েন্টি ফোর ডটকমকে জানান, সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচনী প্রক্রিয়া শেষ করতে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত সময় থাকলেও তাদের অতদিন যাওয়ার কোনো সুযোগ নাই। কারণ, ভোটের পর নানা প্রক্রিয়ার জন্য হাতে আরও ১০ দিনের মতো সময় রাখতে হয়। সে হিসাবে তাদেরকে ১৪ জানুয়ারির মধ্যে ভোট শেষ করতে হবে।

গত সোমবার ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট হবে ৫ জানুয়ারি। নির্বাচনে আগ্রহীদের মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে ২ ডিসেম্বরের মধ্যে। তবে এরই মধ্যে অবরোধের কারণে দুইদিন সময় পেরিয়ে গেছে। ফলে বিএনপি-জামায়াতকে নির্বাচনে অংশ নিতে হলে আর পাঁচ দিনের মধ্যে মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে।

তবে এই ঘোষিত তফসিল স্থগিতের প্রতিবাদে মঙ্গলবার থেকে রাজপথ, রেলপথ ও নৌপথ অবরোধ করছে বিএনপি-জামায়াতের নেতৃত্বে ১৮ দল। অবরোধের প্রথম দিন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন, বিএনপি নির্বাচনে আসলে প্রয়োজনে তারা তফসিল পরিবর্তন করবেন।

পুনঃতফসিল হলে ভোট কবে হবে, জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশনার মো. আবু হাফিজ ঢাকা টাইমস টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘এই সিদ্ধান্ত এখনও নেইনি আমরা। বিএনপি আবেদন করলে বৈঠকে বসে আমরা সিদ্ধান্ত নেবো’। বিএনপি আবেদন করলে তফসিল সর্বোচ্চ কতদিন পেছাতে পারবেন আপনারা-জানতে চাইলে আবু হাফিজ জানান, তাদের ১৪ জানুয়ারির পরে যাওয়ার সুযোগ নেই।

নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা জানান, জাতীয় নির্বাচনের ভোটের দিন কোনো কেন্দ্রে গোলযোগের কারণে স্থগিত আসনে নির্বাচন, বিজয়ী প্রার্থীদের গেজেট প্রকাশসহ নানা দাপ্তরিক কাজে এক সপ্তাহেরও বেশি সময় লাগে। এ কারণে সব শেষ সময়ের অন্তত ১০ দিন আগে ভোট শেষ করার নজির আছে।

তবে বিএনপি জানিয়েছে, তারা তফসিল পেছানোর কোনো আবেদন নির্বাচন কমিশনে করবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনকালীন সরকারের প্রধানমন্ত্রী থাকলে বিএনপি-জামায়াত জোট নির্বাচনে যাবে না, এমন কথা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন দলের নেতারা।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ সাংবাদিকদের বলেছেন, শেখ হাসিনার পদত্যাগই আগামী নির্বাচন নিয়ে তৈরি হওয়া সব অনিশ্চয়তার অবসান ঘটাতে পারে। প্রধানমন্ত্রী থেকে আওয়ামী লীগ সভাপতি পদত্যাগ করলে বিএনপি সরকারের সাথে আলাপ আলোচনা করে নির্বাচনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে বলেও জানিয়েছেন রিজভী আহমেদ।

এদিকে তফসিল স্থগিতের দাবি এবং নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবিতে বিএনপি দেশব্যাপী সড়ক, রেল ও নৌপথ অবরোধ ১২ ঘণ্টা বাড়িয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত করার ডাক দিয়েছে।

নির্বাচন কমিশন অবশ্য বলছে, বিরোধী দলের আন্দোলন কর্মসূচি বিবেচনায় নেয়ার কোনা সুযোগ তাদের নাই। সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন তাদের করতেই হবে আর সে জন্য সার্বিক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এরই মধ্যে নির্বাচন কমিশনের উপজেলা কার্যালয়ে নির্বাচনী সরঞ্জাম পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন