৬টি সহজ উপায়ে শুষ্ক ত্বক থেকে মুক্তি

0
64
Print Friendly, PDF & Email

ইতিমধ্যেই অনেকের ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়া শুরু করেছে। হাত পায়ের ত্বকও বেশ রুক্ষ হয়ে যেতে শুরু করেছে, ঠোঁটও ফেটে যাচ্ছে অনেকেরই। শীতকালে আদ্রর্তা হারিয়ে ত্বক শুষ্ক হয়ে উঠে এবং শীতে ত্বকের অবশ্যই দরকার বাড়তি যত্ন। আসুন জেনে নেয়া শুষ্ক ত্বক থেকে মুক্তি পাওয়ার ৫টি সহজ উপায়।

অতিরিক্ত গরম পানি নয়- শীত এলে স্বাভাবিক ভাবেই অনেকে গরম পানি দিয়ে গোসল করেন। ঠান্ডা পানি দিয়ে গোসল করলে অসুস্থ হয়ে যাওয়ার ভয়ে কিংবা কিছুটা আরাম পাওয়ার জন্যই গরম পানি দিয়ে গোসলের এই পর্ব। কিন্তু আপনি কী জানেন যে হালকা গরমের বদলে বেশি গরম পানি দিয়ে গোসল করলে কিংবা হাত মুখ ধুলে ত্বক আরো বেশি শুষ্ক হয়ে যায়? কুসুম গরম পানি দিয়ে গোসলের বদলে পানির তাপমাত্রা যদি বেশি থাকে তাহলে ত্বক নিজস্ব তেল হারায় এবং শুষ্ক হয়ে ওঠে। কুসুম গরম পানি দিয়েও ৫ থেকে ১০ মিনিটের বেশি সময় ধরে গোসল করা ত্বকের জন্য ক্ষতিকর।

ত্বক পরিষ্কার করুন- শীত এলেই ত্বক পরিষ্কার করতে শুরু হয় আলসেমি। শীতে পানি ঠান্ডা থাকে বলে অনেকেই আলসেমি করে মুখ না ধুয়েই ঘুমিয়ে পড়েন। ত্বকের যত্নে এই অবহেলার কারণে ব্রণের উপদ্রব বেড়ে যেতে পারে এবং জমে থাকা মরা চামড়ার কারণে ত্বক রুক্ষ ও অনুজ্জ্বল হয়ে যায়। তাই শীতকালেও প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ত্বক ভালো করে পরিষ্কার করুন এবং মাঝে মাঝে স্ক্রাবিং করুন। তাহলে ত্বকের মরা চামড়া পরিষ্কার হয়ে ত্বক থাকবে কোমল ও মসৃণ।

রোদ পরিহার করুন- অনেকেই ভাবেন শীতের রোদ তো ক্ষতিকর নয়! শীত কালের রোদে বেশ আরামের অনুভূতি হয় তাই অনেকেই এই সময়ে প্রচুর রোদ লাগিয়ে থাকেন শরীরে। কিন্তু শীতের রোদ আর গরম কালের রোদ মূলত সমান ক্ষতিকর। কারণ সূর্যের ক্ষতিকর অতি বেগুনী রশ্মি সব সময়েই ত্বকের ক্ষতি করে এবং ত্বককে রুক্ষ ও কালো করে দেয়। তাই রোদ থেকে রক্ষা পেতে শীতেও ব্যবহার করুন সানস্ক্রিন ও ছাতা

প্রচুর পানি ও সবজি খান- শীত এলে অনেকেই পানি খাওয়া কমিয়ে দিয়ে থাকেন। শীতে ত্বক তার স্বাভাবিক আদ্রর্তা হারিয়ে রুক্ষ হয়ে ওঠে। তাই শীতে পানি খাওয়ার পরিমাণ উলটো আরও বাড়িয়ে দেয়া উচিত যেন ত্বকের আদ্রর্তা বজায় রাখা যায়। শীতে ত্বককে মসৃণ ও উজ্জ্বল রাখতে প্রচুর শাক সবজি ও ফলের রস খাওয়ারও কোনো বিকল্প নেই।
ফেস প্যাক- শীতে ফেস প্যাকে কিছুটা পরিবর্তন নিয়ে আসুন। সাধারনত আমরা গরম কালে যেই ফেসপ্যাক গুলো ব্যবহার করি সেগুলো ত্বক কিছুটা শুষ্ক করে ফেলে শীতের সময়ে। তাই ফেস প্যাকে গোলাপ জল কিংবা পানির বদলে ব্যবহার করুন দুধ, মধু কিংবা অলিভ ওয়েল। তাহলে ত্বক থাকবে মসৃন ও উজ্জ্বল।
ভালো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার- শীতের সময়ে বাড়তি সুরক্ষার জন্য ভালো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার অত্যন্ত জরুরী। নামী দামী কোম্পানির ক্রিম, লোশন ইত্যাদি ব্যবহার তো করতেই পারেন। সেই সাথে ব্যবহার করতে পারেন গ্লিসারিনও। সম পরিমান গ্লিসারিন ও গোলাপ জল একত্রে মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন আপনার নিজস্ব ময়েশ্চারাইজার হিসাবে। এতে মেশাতে পারে কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল কিংবা আপনার পছন্দের কোনো সৌরভ।

শেয়ার করুন