হাফিংটন পোস্টে এবার জামায়াত বন্দনা

0
44
Print Friendly, PDF & Email

শেখ হাসিনা ও সজীব ওয়াজেদ জয়ের মৃত্যু কামনার পর জামায়াতে ইসলামকে, আওয়ামী লীগ-বিএনপির বিকল্প শক্তি হিসেবে প্রমাণ করতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রচারণায় নেমেছেন বিতর্কিত সাংবাদিক উইলিয়াম নিকোলাস গোমেজ।

সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী সমাদৃত হাফিংটন পোস্টে লেখা একটি নিবন্ধে উইলিয়াম গোমেজ লিখেন, বর্তমানের দুঃশাসনের রাষ্ট্রব্যবস্থা ছুড়ে ফেলে দিয়ে একমাত্র জামায়াতে ইসলামীই পারে বাংলাদেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে।
কবি ফরহাদ মজহারকে মাওলানা ভাসানীর সাথে তুলনা করে উইলিয়াম গোমেজ তার নিবন্ধে লেখেন, বর্তমানে বাংলাদেশে এমন অনেক নেতাই আছেন, যাদের রাজনৈতিক আদর্শ মাওলানা ভাসানীর মতো। উদাহরণ স্বরুপ, ফরহাদ মজহারের নাম বলা যায়। যিনি চলমান ফ্যাসিবাদী রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন ও ভয়হীনভাবে গণমাধ্যমের পূর্ণ স্বাধীনতা দাবি করছেন। ৬ মে ঢাকায় রাতের আঁধারে ঘুমন্ত ও প্রার্থনারত মুসল্লিদের উপরে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর হামলায় নাম না জানা অসংখ্য মানুষ হত্যাযজ্ঞের বিরুদ্ধে তিনি একাই প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

ওই নিবন্ধে বিতর্কিত সাংবাদিক উইলিয়াম নিকোলাস গোমেজ লিখেন, ‘জামায়াত বছরের পর বছর ধরে একক কোন রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে ব্যর্থ হয়েছে। দলটি নানান সময়ে বিভিন্ন দলের সাথে জোটবদ্ধ হয়ে রাজনীতি করে। জামায়াত এককভাবে রাজনীতি না করে অন্য দলের সাথে জোটবদ্ধতাকে রাজনৈতিক কৌশল হিসেবেই বিবেচনা করে। কিন্তু দেখা যায়, দলটি সাধারণ মানুষের স্বার্থের প্রতি দৃষ্টি না দিয়ে কেবলমাত্র সংকীর্ণ দলীয় স্বার্থে জোটবদ্ধ রাজনীতি করে। জামায়াতের এই জোটবদ্ধ রাজনীতির কৌশল দলটির অস্তিত্বকে বিলীন করে দিতে পারে। দলটি যদি গণতান্ত্রিক পদ্ধতির সাথে ইসলামের সংমিশ্রণ ঘটাতে পারে ও একক ভাবে রাজনীতি করে তবে অদূর ভবিষ্যতে দলটি সংসদীয় রাজনীতিতে অতি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবে’।

জামায়াতে ইসলামীকে বিকল্প শক্তি হিসেবে উপস্থাপন করতে গিয়ে গোমেজ বাংলাদেশের প্রধান দুই দলেরই সমালোচনা করেছেন। তিনি লেখেন, ‘আওয়ামী লীগ ও বিএনপি এখন পরিবার তন্ত্রের কবলে আক্রান্ত। শেখ হাসিনা, শেখ মুজিবুর রহমানের মতোই কখনও ভারতের প্রভাব বলয় থেকে বের হতে পারেনি।
একইভাবে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানকে নিয়েও মানুষের মনে প্রত্যাশা সৃষ্টি হয়েছিল। তিনি জনগণের নেতা হিসেবে পরিচিত হয়েছিলেন। কিন্তু জিয়াও রাজনীতিকে ক্যান্টনমেন্টের ভেতর ঢুকিয়ে ফেলেছিলেন। একারণে বিএনপি সমালোচিত হয়েছে। এই দুইয়ের বাইরে এসে বাংলাদেশের সুন্দর আগামীর জন্য একমাত্র দল হতে পারে জামায়াতে ইসলাম’।

শেয়ার করুন