দুষলেন গণমাধ্যমকে বক্তব্য ফিরিয়ে নিলেন হান্নান শাহ

0
96
Print Friendly, PDF & Email

দেশের প্রধান দুই জোটের মহাসচিব সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এবং মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ‘গোপন বেঠক ফলপ্রসূ হয়নি’ এমন মন্তব্য করে বিপাকে পড়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আ স ম হান্নান শাহ।

গতকাল শনিবার রাতেই মির্জা ফখরুল বৈঠকের খবরটি ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেন। আর রোববার দুপুরে হান্নান শাহর এমন বক্তব্য দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হওয়ায় তার প্রত্যাহার করা হয়েছে।

দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বক্তব্যটি দেন হান্নান শাহ। ঠিক এর ঘণ্টা কয়েক পর বেলা ৩টার দিকে তা আবার প্রত্যাহার করা হয়। উপরন্তু বক্তব্য বিকৃত করে প্রচার হয়েছে বলে গণমাধ্যমের বিরুদ্ধে বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগও করা হয়েছে।

দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত ‘চলমান রাজনৈতিক সংকট ও বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য মেজর (অব.) মিজানুর রহমানসহ শীর্ষ নেতাদের মুক্তির দাবিতে একটি প্রতিবাদ সভায়’ অংশ নিয়ে বৈঠক প্রসঙ্গে হান্নান শাহ বলেন, ‘ওই বৈঠক সম্পর্কে আমি যতটুকু জেনেছি, আলোচনার ফলাফল বলার মতো নয়। সেখানে কোনো এজেন্ডা ছিল না। সৈয়দ আশরাফ বার বার বলেছেন, আমি কিছু বলতে পারবো না, নেত্রী যা বলবেন আমি তাই করবো।… তিনি কর্তার (প্রধানমন্ত্রী) ইচ্ছায় কর্ম করেন। প্রধানমন্ত্রী আলোচনার ব্যাপারে আমাদের মহাসচিবকে বললেও আশরাফ সাহেবকে কিছু বলেননি।’

হান্নান শাহর এই বক্তব্য প্রচারের পর বেলা ৩টার দিকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে দলের দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদের সই করা একটি ই-মেইল গণমাধ্যমে পাঠানো হয়েছে।

‘গণমাধ্যমে প্রচারিত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) আ স ম হান্নান শাহর বক্তব্যের ব্যাখা’ শিরোনামে বলা হয়, ‘আজ জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মেজর (অব.) মিজানুর রহমান মিজান ও গ্রেপ্তারকৃত অন্য নেতৃবৃন্দের মুক্তির দাবিতে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে আমি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মধ্যে যে কথিত আলাপ হয়েছে বলে বক্তব্য দিয়েছি তা গণমাধ্যমে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। মূলতঃ আমি আজ কিছু গণমাধ্যমে প্রকাশিত ও প্রচারিত উল্লিখিত দু’জন নেতার বৈঠকের খবরটির পরিপ্রেক্ষিতেই বক্তব্য দিয়েছি। পরে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবের নিকট থেকে বৈঠকের বিষয়টি ভিত্তিহীন নিশ্চিত হয়ে তা ইতোমধ্যে গণমাধ্যমে জানিয়েছি, যা কিছু গণমাধ্যম প্রচার করেছে। বৈঠকের খবরটি অসত্য এবং নিছক গুজব, সুতরাং এ বিষয়ে আর কেউ যাতে বিভ্রান্তি ছড়াতে না পারে সেজন্য আমি সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করছি।’

‘মূলতঃ আমি আজ কিছু গণমাধ্যমে প্রকাশিত ও প্রচারিত উল্লিখিত দু’জন নেতার বৈঠকের খবরটির পরিপ্রেক্ষিতেই বক্তব্য দিয়েছি।’

শেয়ার করুন