সরকারি মিথ্যাচারে দেশবাসীকে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান ফখরুলের

0
47
Print Friendly, PDF & Email

সমঝোতায় বিরোধীদল কোনোভাবেই আগ্রহী নয় বলেই বিভিন্ন বৈঠক ও সংলাপে মিথ্যা তথ্য ছড়ানো হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ মিথ্যাচারে দেশবাসী ও ১৮ দলীয় জোটের নেতা-কর্মীদের বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য তিনি আহ্বান জানিয়েছেন।

টাইম নিউজকে তিনি বলেন, সরকার পরিকল্পিতভাবে মিডিয়ায় বিভ্রান্তি ছড়িয়ে আন্দোলন কর্মসূচিকে দূর্বল করার কৌশল নিয়েছে। তবে সরকারকে এখনো আহ্বান জানাচ্ছি অশুভ পথ ছেড়ে সমঝোতার জন্য খোলামেলা আলোচনায় বসুন। মিথ্যাচার পরিহার করুন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আরও বলেন, অনেক মানুষের সামনেই ২১ নভেম্বর সেনাকুঞ্জে প্রধনমন্ত্রীর সঙ্গে কুশল বিনিময় হয়েছে। কোনো কোনো মিডিয়া কথোপকথনের সাউন্ডসহ তা প্রচার করেছে। কিন্তু সরকারের নির্দেশনায় প্রায় সব গণমাধ্যম প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে মহাসচিব পর্যায়ে সংলাপের আহ্বানের মিথ্যা তথ্য প্রচার ও প্রকাশ করেছে।

একইভাবে শনিবার রাতে প্রায় সব মিডিয়া একযোগে একটি বিভ্রান্ত তথ্য প্রচার করেছে বলে অভিযোগ করেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব। তিনি বলেন, যেখানে আমি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সাহেবকে একাধিকবার ফোনে সংলাপের আহ্বান জানিয়েছি। তাকে লিখিতভাবে চিঠি দিয়েছি। প্রধানমন্ত্রী একরোখাভাবে একটি অবৈধ মন্ত্রীসভা গঠন করলেন। নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে শিডিউল ঘোষণা করাচ্ছেন। জনমতকে তারা পাত্তাই দিচ্ছেন না। সংলাপের আহ্বানকে তারা কানেই তুলছেন না।

মির্জা ফখরুল বলেন, যেহেতু শিডিউল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে আমরা কঠোর কর্মসূচিতে যাবো, সেহেতু সরকার জনগণের মাঝে বিভ্রান্তি ছড়াতে পরিকল্পিতভাবে এসব মিথ্যাচার ছড়াচ্ছে। এতে দলীয় নেতাকর্মীরাও বিভ্রান্ত হচ্ছে।

আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই, মিডিয়াকে ব্যবহার করে এসব বিভ্রান্তি ছড়িয়ে লাভ হবে না। সংলাপ চাইলে আসুন, আমরা খোলামেলাভাবে বসি। গোপন বৈঠকের মিথ্যা প্রচারণা দিয়ে দেশবাসীকে বিভ্রান্ত না করতে সরকারের প্রতি তিনি আহ্বান জানান

শেয়ার করুন