ব্রিটিশ সংখ্যালঘুদের মধ্যে দুর্নীতির সমস্যা রয়েছে

0
59
Print Friendly, PDF & Email

যুক্তরাজ্যে কিছু সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মধ্যে কথিত দুর্নীতির বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল ডমিনিক গ্রিভ। এর বিরুদ্ধে ব্রিটিশ রাজনৈতিকদের ‘সোচ্চার হতে’ হবে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।
ব্রিটিশ পত্রিকা টেলিগ্রাফকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে গ্রিভ কোনো একটি সম্প্রদায়ের মধ্যে এ দুর্নীতি সীমাবদ্ধ, এমনটা বলেননি। তবে তিনি ‘মূলত পাকিস্তানি সম্প্রদায়ের’ কথা উল্লেখ করেছেন। গ্রিভ বলেছেন, যুক্তরাজ্যে ‘পক্ষপাতের সংস্কৃতি’ গ্রহণযোগ্য নয়, এ বিষয়টা অবশ্যই স্পষ্ট করে দিতে হবে।
অ্যাটর্নি জেনারেল গ্রিভের ওই মন্তব্যের পর একজন পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ পার্লামেন্ট সদস্য অভিযোগ তুলেছেন, তিনি ব্রিটিশ সম্প্রদায়গুলোর মধ্যে বিভাজন সৃষ্টির চেষ্টা করছেন।
কনজারভেটিভ পার্টির সদস্য এমপি ডমিনিক গ্রিভ টেলিগ্রাফকে বলেন, কেবল পাকিস্তানি সম্প্রদায়ের মধ্যেই যে এই সমস্যা বিদ্যমান, এটা তিনি বলবেন না। কেননা, ‘শ্বেতাঙ্গ অ্যাংলো-স্যাক্সন’ সম্প্রদায়ের মধ্যেও দুর্নীতি দেখা যাচ্ছে। তবে যুক্তরাজ্যে আসা কিছু অভিবাসীর মধ্যে দুর্নীতির ধরন তাঁদের স্বদেশের মতো।
গ্রিভ বলেন, ‘তাঁরা সেই সমাজে বেড়ে উঠেছেন, যেখানে বিশ্বাস করা হয় যে পক্ষপাতের মাধ্যমেই কেবল সুনির্দিষ্ট কিছু সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যাবে।’ অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, ‘একটা বিষয় আপনাকে একেবারে স্পষ্ট করতে হবে যে এটা প্রকৃত সত্য নয়; এটা গ্রহণযোগ্য নয়। এটা এমন একটা বিষয়, যার বিরুদ্ধে রাজনীতিক হিসেবে আমাদের সোচ্চার হতে হবে।’
বিবিসিকে দেওয়া এক বিবৃতিতে অ্যাটর্নি জেনারেল এও বলেছেন, ‘যুক্তরাজ্যে ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্তীকরণ আমাদের জন্য বিশাল উপকার বয়ে এনেছে।’ বিবিসি।

শেয়ার করুন