দিল্লীতে অফিসে মহিলাকে গণধর্ষণ

0
52
Print Friendly, PDF & Email

ভারতের রজধানী নয়াদিল্লীর পিতমপুরা এলাকায় একটি অফিসে ২৭ বছর বয়সী এক মহিলা গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। গত বুধবার এ ঘটনার পর দিল্লীর পুলিশ বলছে, এ ধরণের ঘটনা রাজধানীতে মহিলাদের নিরাপত্তার জন্য উদ্বেগজনক হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বর্ধমান প্লাজা টাওয়ারের ৪ তলায় ওই মহিলা একটি এয়ারলাইন ই-টিকেটিং এজেন্সিতে চাকরি করেন। তিনি অভিযোগ করেন, দুই যুবক পানীয়র সঙ্গে চেনতানাশক খাইয়ে অফিসেই তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষকদের আটক করেছে পুলিশ।

নির্যাতিত ওই মহিলা উত্তর-পশ্চিম দিল্লীর রানিবাগের বাসিন্দা। তিনি জানান, ওই দুই যুবক টিকেট বুকিংয়ের অজুহাতে অফিসে এসেছিল। প্রাথমিক কথাবার্তার পর যুবকরা তাকে ড্রিঙ্কসের অফার দেয়। তাদের অফারে তিনি রাজি হয়ে যান।

অভিযুক্তদের একজন পানীয়তে ঘুমের বড়ি মিশিয়ে দেয়। তা খেয়ে মহিলা চেতনা হারান। পরে ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে যুবকরা মহিলাকে গণধর্ষণ করে।

পুলিশ বলছে, অফিসের অন্যরা চলে গেলেও ওই মহিলা সদ্য পরিচিতদের সঙ্গে সন্ধ্যার পরও ড্রিঙ্কস করছিল। জ্ঞান ফেরার পর বাড়িতে গিয়ে ঘটনার কথা প্রকাশ করে। পরদিন পুলিশের কাছে অভিযোগ দেয়া হয়।

মঙ্গলপুরি পুলিশ স্টেশনের অফিসার আশোক কুমার জানান, এ ঘটনায় ধর্ষণ ও অজ্ঞান অপরাধ আইনে একটি মামলা হয়েছে।

আটক অভিযুক্তরা হল- রানিবাগ এলাকার সুনিল চাবরা ও পশ্চিম পিতমপুরা এলাকার সুনিল সেঘাল।

পুলিশ বলছে, মেডিকেল পরীক্ষায় ধর্ষনের বিষয়টি ধরা পড়েছে। ওই মহিলাকে চেতনানাশক খাওয়ানো হয়েছে ডাক্তাররা তাও নিশ্চিত হয়েছেন।

পুলিশ জানায়, দিল্লীর শপিংমলগুলোতে গণধর্ষণের হার বেড়েই চলেছে। এজন্য নারীদের জন্য নিরাপত্তা বাড়ানোর দাবি করেছে পুলিশ।

শেয়ার করুন