জয়ে ফিরল কিউইরা

0
36
Print Friendly, PDF & Email

তাদের। অথচ সেই নিউজিল্যান্ডেরই শ্রীলঙ্কা সফরে ভিন্ন  চেহারা। বৃষ্টি বিঘ্নিত দ্বিতীয় ওয়ানডেতে মাত্র ২৩ ওভারে ১৯৮ রানের কঠিন লক্ষ্য তাড়া করে ৪ উইকেটে জিতেছে অতিথি দল।
নিয়মিত অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককালাম, সহঅধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ও দলের অন্যতম অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান রস টেইলরের অনুপস্থিতির কারণে নিউজিল্যান্ডের এই জয়ের মাহাত্ম্য অনেক বেশি। আর নাটকীয়ভাবে জয়টা এসেছে শেষ চার বলে নেইথান ম্যাককালামের একটি চার ও তিনটি ছক্কার মারে।
বৃষ্টিতে প্রথম ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেলো নিউজিল্যান্ড। আগামী শনিবার ডাম্বুলায় হবে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে।
মঙ্গলবার হাম্বানটোটার মাহিন্দা রাজাপাকসা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট  স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ম্যাচও বৃষ্টিতে ধুয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় পড়েছিল।
টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ১২ রানে দিমুথ করুনারত্নেকে হারানোর পর দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান তিলকরত্নে দিলশান ও কুমার সাঙ্গাকারার দৃঢ়তায় ঘুরে দাঁড়ায় শ্রীলঙ্কা। ২১তম ওভারের চতুর্থ বলের পর বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। সে সময় স্কোর ছিল ১১৭/১।
তুমুল বৃষ্টি শেষে গ্রাউন্ডসম্যানদের প্রাণান্তকর প্রচেষ্টায় প্রায় সাড়ে ৫ ঘণ্টা পর খেলা শুরু হয়। ততক্ষণে ম্যাচের দৈর্ঘ্য নেমে এসেছে ২৩ ওভারে। শেষ ১৪ বলে দিলশান ও সাঙ্গাকারা অনেক চেষ্টা করেও ২১ রানের বেশি নিতে পারেননি। তবে আর কোনো উইকেট না হারানোয় প্রতিপক্ষকে ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে কঠিন লক্ষ্য ছুড়ে দিতে পারে শ্রীলঙ্কা। দিলশানের ৭২ বলে অপরাজিত ৫৫ রানের ইনিংসে চার ৯টি। সমান চার মারলেও মাত্র ৫৯ বলে ৭১ রানে অপরাজিত থেকে যান সাঙ্গাকারা।
জবাবে দলীয় ৮ রানে দ্বিতীয় এবং ৬৮ রানে চতুর্থ উইকেট হারানো নিউ জিল্যান্ড পরাজয়ের শঙ্কায় পড়ে যায়। তবে লুক রনকি ও টম লেইথামের দারুণ এক জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় তারা। পঞ্চম উইকেটে ৫৭ বলে ৯৩ রানের জুটি গড়েন দুজনে।
২১তম ওভারের দ্বিতীয় বলে রনকিকে লং-অফে দিলশানের ক্যাচ বানিয়ে জুটিটা ভাঙ্গেন নুয়ান কুলাসেকারা। এক রানের জন্য অর্ধশতক বঞ্চিত রনকির ২৬ বলে ৪৯ রানের ইনিংসে ছিল ৭টি চার ও একটি ছক্কা। তিন বল পর আবার কুলাসেকারার আঘাত। ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে ঝাঁপিয়ে পড়ে বাঁহাতি লেইথামকে দারুণভাবে তালুবন্দী করেন সচিত্রা সেনানায়েকে। ম্যাচ সেরা লেইথামের ৬৮ বলে ৮৬ রানের দুর্দান্ত ইনিংসটা সাজানো ১২টি চার ও একটি ছক্কায়। শেষ দুই ওভারে ৩২ ও শেষ ওভারে ২০ রানের প্রয়োজনীয়তার সামনে দাঁড়িয়ে থাকা নিউজিল্যান্ডকে শ্বাসরুদ্ধকর জয় এনে দেয়ার কৃতিত্ব নেইথান ম্যাককালামের।
লাসিথ মালিঙ্গার করা ২২তম ওভারে আসে দুটি চারসহ ১২ রান। শেষ ওভারে বাঁহাতি স্পিনার রঙ্গনা হেরাথের হাতে বল তুলে দেন অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস।
প্রথম দুই বলে জেমস নিশাম ৩ রানের বেশি নিতে পারেননি। তবে তৃতীয় বলে স্ট্রাইক পাওয়া নেইথান পর পর তিন বলে ছক্কা-চার-ছক্কা মেরে জয়ের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যান দলকে। শেষ বলে প্রয়োজন ছিল মাত্র এক রান। ব্রেন্ডন ম্যাককালামের বড় ভাই ছক্কা মেরেই নিউজিল্যান্ডকে এনে দেন অবিস্মরণীয় জয়। মাত্র ৯ বলে ৩২ রানে অপরাজিত নেইথানের ঝড়ো ইনিংসে ছিল তিনটি করে চার ও ছক্কা। ৩৪ রানে ৪ উইকেট নিলেও হারের যন্ত্রণা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে কুলাসেকারাকে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা: ২৩ ওভারে ১৩৮/১ (করুনারত্নে ৪, দিলশান ৫৫*, সাঙ্গাকারা ৭১*; মিলস ১/১৬)

নিউজিল্যান্ড: ২৩ ওভারে ২০৩/৬ ( লেইথাম ৮৬, ডেভসিচ ১, নিকোল ০, এলিয়ট ৭, মানরো ১৫, রনকি ৪৯, নিশাম ৫*, নেইথান ম্যাককালাম ৩২*; কুলাসেকারা ৪/৩৪, সেনানায়েকে ২/৩১)

ম্যাচ সেরা: টম লেইথাম।

শেয়ার করুন