হাইয়ানে দুই থেকে আড়াই হাজার লোক মারা গেছে : একুইনো

0
53
Print Friendly, PDF & Email

ফিলিপাইনের মধ্যাঞ্চলকে ধ্বংসস্তুপে পরিণত করা প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় হাইয়ানে ১০ হাজার নয়, দুই থেকে আড়াই হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবী করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট বেনিগনো একুইনো।

মঙ্গলবার সিএনএন’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি নিহতের ওই সংখ্যার কথা উল্লেখ করেন।

এদিকে, ঘূর্ণিঝড় দূর্গতদের মধ্যে ত্রাণ সরাবরাহ তৎপরতায় সহায়তা করতে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের বেশ কয়েকটি রণতরী এখন ফিলিপাইনের পথে রয়েছে।

“দশ হাজার, আমার ধারণা, এটি অনেক বেশি। আবেগায়িত হয়েই এ ধরনের সংখ্যার কথা বলা হয়েছে,” সিএনএন’কে বলেন একুইনো।

তার সরকার ঘূর্ণিঝড় দুর্গত এলাকাগুলো থেকে এখনও তথ্য সংগ্রহ করছে জানিয়ে তিনি বলেন, “বাকী ২৯টি পৌরসভার সঙ্গে যোগাযোগের আশা করছি আমরা, যাদের পরিসংখ্যানগুলোও বের করতে হবে, বিশেষভাবে নিখোঁজেদের। তবে এ পর্যন্ত আমাদের হিসেবে নিহতের সংখ্যা দুই থেকে আড়াই হাজারের মতো।”

তবে এ সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পেতে পারে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

হাইয়ানের তাণ্ডবে মঙ্গলবার পর্যন্ত সরকারিভাবে মৃতের সংখ্যা ছিল এক হাজার ৭শ’ ৭৪ জন।

বিশ্বে রেকর্ডকৃত সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়গুলোর মধ্যে অন্যতম হাইয়ানের তাণ্ডবে বিস্মিত হয়ে পড়েছিল ফিলিপাইনের কর্মকর্তারা।

শুক্রবার ভোরে আঘাত হানা এই ঝড়টি ফিলিপাইনের মধ্যবর্তী অঞ্চল দুমড়ে-মুচড়ে দিয়ে বেড়িয়ে গেছে। এই প্রলঙ্করী ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে দেশটির উপকূলীয় প্রদেশ লেইতির প্রধান শহর ট্যাকলোবান মাটির সঙ্গে মিশে গেছে।

এখানে অন্তত দশ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলে স্থানীয় কর্মকর্তারা আশঙ্কা করেছেন। এদের অনেকেই সাগর থেকে সুনামির মতো এগিয়ে আসা জলোচ্ছ্বাসে ডুবে মারা গেছেন।

ঘূর্ণিঝড়ে এ ধরনের ধ্বংসযজ্ঞের অভিজ্ঞতা এবারই প্রথম হলো ফিলিপিনোদের। এমনিতে দূর্যোগের সঙ্গে এই দ্বীপবাসীদের ভালোই পরিচয় আছে। আগ্নেয়গিরির উদ্বগিরণ, ভূমিকম্পসহ প্রতিবছর প্রায় ২০টি ঘূর্ণিঝড়ের মুখোমুখি হয় সাত হাজারেরও বেশি দ্বীপ নিয়ে গঠিত এই দেশটির মানুষদের।

কিন্তু এ যাবৎকালের অন্যতম এ ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে তারা স্তম্ভিত হয়ে গেছে।

ঘন্টায় ২৭৫ মাইল বেগে বয়ে চলা বাতাসের তোড়ে ও জলোচ্ছ্বাসে প্রায় ৬ লাখ ৬০ হাজার মানুষ ঘরবাড়ি হারিয়ে খোলা আকাশের নীচে আশ্রয় নিয়ে আছেন। খাবার নেই, নেই বিশুদ্ধ পানি বা ওষুধ, এর মধ্যে আবার বৃষ্টি হচ্ছে।

এই পরিস্থিতিতেই ফিলিপাইনের ঘূর্ণি-দুর্গতদের সাহায্যার্থে বিশ্ব সম্প্রদায়ের কাছে ৩০ কোটি ১০ লাখ ডলার সাহায্যের আবেদন জানিয়েছে জাতিসংঘ। বিশ্ব এই সংস্থাটির হিসাব মতে, ঘূর্ণিঝড় হাইয়ানে দেশটির ১ কোটি ১০ লাখেরও বেশি মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ কয়েকটি দেশ দুর্গতদের মাঝে ত্রাণ সরবরাহ কাজে সহায়তা করতে বেশ কয়েকটি রণতরী ফিলিপাইন অভিমুখে পাঠিয়েছে। কিন্তু বিরুপ আবহাওয়ার জন্য দেশটির উপকূলে পৌঁছতে সেগুলোকে বেগ পেতে হচ্ছে।

আবহওয়ার এই বিরুপ পরিস্থির কারণে ত্রাণ সরবরাহ ও বিতরণেও বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে।

শেয়ার করুন