শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা স্থগিত

0
77
Print Friendly, PDF & Email

 সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সরকারী শিক্ষক নিয়োগের প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে আট জেলার লিখিত পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। এছাড়া অভিযোগ তদন্তে চার সদস্যের একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। তবে ময়মনসিংহ ছাড়া আর কোন কোন জেলার পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে তা এখনও জানা যায়নি।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এস এম আশরাফুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে- এমন অভিযোগে এসব জেলার পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে পরীক্ষা বাতিল করা হবে।’

এছাড়া শিগগিরই তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন দেবে বলেও জানান তিনি।

জানা যায়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণিতে সরকারী শিক্ষক নিয়োগে গত ৮ নভেম্বর সারা দেশের এক হাজার ৩৬২টি কেন্দ্রে লিখিত পরীক্ষা হয়। এতে নয় লাখ ৬৮ হাজার ১২৭ জন অংশ নেন। পরীক্ষার আগের রাতে দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ উঠলে পুলিশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত সচিব বলেন, “বেশ কয়েকটি সেটের প্রশ্নে পরীক্ষা হয়েছে। ময়মনসিংহ জেলায় যে সেটের প্রশ্ন দেয়া হয়েছিল তা ফাঁস হয়েছে বলে বিশ্বাসযোগ্য তথ্য আছে। ওই সেটে যেসব জেলায় পরীক্ষা নেয়া হয়েছে সেই জেলাগুলোর পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।”

প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণিতে প্রায় সাত হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগে গত ২ জুলাই বিজ্ঞপ্তি দেয় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। তৃতীয় প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচির (পিইডিপি-৩) আওতায় রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান বাদে দেশের অন্য জেলা থেকে শিক্ষক নিয়োগ করা হবে।

শেয়ার করুন