টকশো মনিটরিং করছে ইসি

0
39
Print Friendly, PDF & Email

নির্বাচন কমিশন নিয়ে গণমাধ্যমে কি ধরনের সমালোচনা হচ্ছে তা নজরদারির উদ্যোগ নিয়েছে ইসি। আগামী নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত বেসরকারি টেলিভিশনগুলোতে প্রচারিত ‘টকশো’গুলোকে মনিটরিং করা হবে। প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত কোন চ্যানেলে কি ধরনের আলাপ-আলোচনা হচ্ছে তা পর্যবেক্ষণ করে পরদিন কমিশনে রিপোর্ট করার জন্য কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। গণমাধ্যমে নির্বাচন কমিশন নিয়ে কোন সমালোচনাই গ্রহণ করতে পারেন না নির্বাচন কমিশনাররা। এ জন্য টকশোতে কারা কমিশনের পক্ষে বলছে আর কারা বিপক্ষে বলছে তা জানতেই মনিটরিং করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ইসি’র সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা। এর আগে কোন নির্বাচনেই গণমাধ্যমকে নজরদারি করেনি কমিশন। এবারেই প্রথম এধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বর্তমান ইসি। এ প্রসঙ্গে কমিশন সচিব ড. মোহাম্মদ সাদিক বলেন, প্রতিদিনই রাত নামার সঙ্গে সঙ্গে টিভি টকশোতে নির্বাচনী ব্যবস্থাপনা ও আসন্ন নির্বাচন নিয়ে নানা রকমের কথাবার্তা হচ্ছে। কিন্তু এসব টকশো সব সময় কমিশনের সংশ্লিষ্টদের দেখা সম্ভব হয় না। তাই কয়েকজন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব বণ্টন করে সেগুলোকে ভালভাবে মনিটরিং করার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মূলত নির্বাচনকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্যই এসব মন্তব্য ও সমালোচনাগুলোকে অধিক গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি। নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, ছয়টি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে প্রচারিত টকশোগুলোকে মনিটরিংয়ের জন্য কমিশনের পাঁচজন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। নির্ধারিত অফিস সময়ের বাইরে টকশো মনিটরিংয়ের দায়িত্ব বর্তানোতে কর্মকর্তারা আক্ষেপ করে বলেন, কোন চ্যানেলে কোন টকশোতে কে কি বলছেন তা মনিটরিং করার দায়িত্ব কি আমাদের? এটা যখন যেটা প্রচার হচ্ছে তা তাৎক্ষণিক দেখে নিলেই হয়ে যায়। এর জন্য ঘুম নষ্ট করে মনিটরিং করার কি আছে। টকশো মনিটরিংয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা বলেন- গত রবিবার বিকালে এ সম্পর্কে জানানো হয়েছে। তবে এখনও কোন কাজ শুরু করিনি। বুঝতে পারছি না মধ্যরাত পর্যন্ত জেগে থেকে এসব মনিটরিং করা সম্ভব হবে কিনা। নির্বাচন কমিশন নিয়ে কে কি বলছেন তা নিয়ে বসে থাকলে নির্বাচন করা কঠিন হবে। কারণ কমিশন একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান। আর গণমাধ্যমের স্বাধীনতা অবাধ। সেখানে কমিশনের ভাল কাজের প্রশংসার পাশাপাশি মন্দ কাজের সমালোচনা করা হবে- এটাই রীতি। এ নিয়ে মনিটরিংয়ের কি আছে? যে সকল টকশো মনিটরিং করবেন কর্মকর্তারা সেগুলো হলো- বাংলাভিশন ফ্রন্টলাইন (সন্ধ্যা ৬টা) আতিয়ার রহমান, চ্যানেল ৭১-এর সংবাদ সংযোগ (রাত-সাড়ে ৮টা) এবং এটিএন নিউজ (এটিএন নিউজ এক্সট্রা) প্রধান নির্বাচন কমিশনারের একান্ত সচিব একেএম মাজহার, সময় টিভির আজকের সম্পাদকীয় (রাত ১০টা)-শাহেদুন্নবী, ইন্ডিপেন্ডেন্ট চ্যানেলের আজকের বাংলাদেশ-সাবেদ উর রহমান এবং চ্যানেল আই-এর মধ্যরাতের অনুষ্ঠান তৃতীয় মাত্রা-মিজানুর রহমান।

শেয়ার করুন