আপাতত পদত্যাগ করছেন না উপদেষ্টারা

0
124
Print Friendly, PDF & Email

মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা পদত্যাগ করলেও আপাতত পদত্যাগ করছেন না প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টারা। এ ব্যাপারে কোনো নির্দেশনাও পাননি তাঁরা। সাংবিধানিকভাবেও অন্তর্বর্তী সরকার গঠনে জন্য উপদেষ্টাদের পদত্যাগের বাধ্যবাধকতা নেই। তবে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা পেলে পদত্যাগের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন তারা।

জানতে চাইলে প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্য বিষয়ক উপদেষ্টা জে আর মোদাচ্ছের আলী ঢাকাটাইমস টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্ত্রিসভা পুনর্গঠন করতে যাচ্ছেন। তাই মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। কিন্তু এখনও উপদেষ্টাদের তিনি কোনো নির্দেশনা দেননি। নির্দেশনা পেলে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

একটি বেসরকারি টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রীর জনপ্রশাসন বিষয়ক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম বলেছেন, পঞ্চদশ সংশোধনী অনুযায়ী নির্বাচনকালীন অন্তবর্তী সরকার গঠনের আগে মন্ত্রীদের পদত্যাগের কথা বলা থাকলেও উপদেষ্টাদের বিষয়ে কিছু বলা নেই। তাই উপদেষ্টাদের পদত্যাগে কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। তবে প্রধানমন্ত্রী যদি চান, তাহলে অবশ্যই তারা পদত্যাগ করবেন।

সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রীর হাতে পদত্যাগপত্র তুলে দেন মন্ত্রীরা। এর কদিন আগেই মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এবি তাজুল ইসলাম প্রধানমন্ত্রীর হাতে পদত্যাগপত্র তুলে দেন।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররাফ হোসেন ভূইঞা সাংবাদিকদের বলেন, মন্ত্রিপরিষদ ভেঙ্গে দেয়া হবে না। বরং পুর্নগঠিত হবে। এর মধ্যে কয়েকজন মন্ত্রী এই পরিষদে থাকবেন না। এছাড়া নতুন করে কয়েকজন মন্ত্রিসভায় যুক্ত হবেন।

মন্ত্রীদের পদত্যাগপত্র প্রধানমন্ত্রী গ্রহণ করার পর সেগুলো রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো হবে। এর আগ পর্যন্ত মন্ত্রীরা সপদে বহাল থাকবেন।

সংবিধান অনুযায়ী প্রতি দশ জন সাংসদের মধ্য থেকে একজনকে মন্ত্রিসভায় নেয়ার সুযোগ আছে। এজন্য সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী সবদলকেই সর্বদলীয় সরকারে আসার আহ্বান জানানো হয়েছে। কিন্তু বিরোধীদল বিএনপি ওই সরকারের অংশ না নেয়ার সিদ্ধান্তে এখনও অটল রয়েছে। সরকারের একটি সূত্র জানায়, বিএনপি অন্তর্বর্তী সরকারে না এলে আলোচনার ভিত্তিতে অনুপাত কমবেশি করা হবে।

শেয়ার করুন