রাজশাহীতে মহানগর বিএনপির শীর্ষ নেতাদের স্ত্রীরা মাঠে

0
84
Print Friendly, PDF & Email

জোটের ৮৪ ঘণ্টার হরতাল সফল করতে এবার মাঠে নেমেছেন রাজশাহী মহানগর বিএনপির শীর্ষ নেতাদের স্ত্রীরা। সোমবার বেলা ১২টার দিকে ভুবনমোহন পার্কে মহানগর মহিলাদলের ব্যানারে তারা সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে। এসময় তারা নগরবাসীকে হরতাল পালনের আহবান জানানোর পাশাপশি নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুন:বহাল ও কেন্দ্রীয় নেতাদের মুক্তি না দেওয়া হলে রাজশাহী অচল করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

সোমবার সকাল থেকেই বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব মিজানুর রহমান মিনু রাজশাহীতে কর্মরত ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকদের জানান, বেলা ১১টার দিকে একটি চমক আসছে। কিন্তু চমকটি কি তখন কারও কাছেই স্পষ্ট ছিলো না। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে চমকটি প্রকাশ্যে রূপ নিতে থাকে। বেলা ১১টার দিকে নগরীর ভুবনমোহন পার্কে মহানগর মহিলাদল হরতাল সমর্থনে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করে। মহানগর মহিলাদলের আহবায়ক নাজমা বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মিজানুর রহমান মিনুর স্ত্রী সালমা শাহাদাৎ। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও সিটি মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের স্ত্রী রেবেকা সুলতানা সিমি, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. শফিকুল হক মিলনের স্ত্রী সুমাইয়া হক সুমি এবং বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য শহিদুন্নাহার কাজী হেনা। এসময় রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র-৩ সংরক্ষিত আসন ৯ এর কাউন্সিলর নুরুন্নাহার বেগম বিএনপি শীর্ষ নেতাদের স্ত্রীদের সবার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সালমা শাহাদাৎ বলেন, আপনাদের কাছে আজ আমার একটা প্রশ্ন। কেন আমরা বাড়ির কাজ বাদ দিয়ে আন্দোলনে নেমেছি? কারণ একটাই, হাসিনা সরকারের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়েই আমরা আজ মাঠে। তাই আসুন সবাই মিলে কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারের পতন ঘটাই।

বিশেষ অতিথি বিএনপি নেতা শফিকুল মিলনের স্ত্রী সুমাইয়া হক সুমি সমাবেশে উপস্থিত হওয়ার জন্য হরতাল সফল করতে সহযোগিতার জন্য উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য শেষ করেন। কিন্তু সিটি মেয়র স্ত্রী রেবেকা সুলতানা সিমি সকলকে হরতাল পালনের আহবান জানিয়ে বলেন, বর্তমানে দেশের পরিস্থিতি খুবই খারাপ। তাই আমরা আজ সবার পাশে এসে দাঁড়িয়েছি। তিনি বলেন, আপনারা যারা সরকারি চাকরি করেন তারা অফিস আদালতে না গিয়ে আমাদের সাথে আন্দোলনে শরিক হন। আন্দোলনে নামুন। সরকারের কাছ থেকে আমাদের অধিকার ফিরিয়ে আনতে সবাইকে একসাথে রাজপথে নামার আহবান জানান তিনি।

শেয়ার করুন