মানবাধিকার সংস্থার সহায়তা চাচ্ছি

0
125
Print Friendly, PDF & Email

শীর্ষনেতাদের গ্রেপ্তারের পর বিরোধী দলের সব নেতাকর্মী এখন নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন জানিয়ে বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ মানবাধিকার কর্মী ও সংগঠকদের বিএনপির নেতাকর্মীদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘সারাদেশে নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে, তারা সবাই নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে আছে। আমি দেশের সব মানবাধিকার সংস্থা, গণমাধ্যম ও আইনজীবীদের কাছে আইনি সহায়তা চাচ্ছি।’

১৮ দলের টানা ৭২ ঘণ্টা হরতাল আহ্বানের পর বিএনপির শীর্ষনেতাদের গ্রেপ্তারের প্রেক্ষাপটে শনিবার নয়াপল্টনে দলীয় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ আহ্বান জানান তিনি।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় পুলিশ ঘিরে রেখেছে। সেখানে নেতাদের মধ্যে শুধু রিজভী রয়েছেন। পুলিশ কোনো কর্মীকেও সেখানে ঢুকতে দিচ্ছে না।

হরতাল ঘোষণার পর শুক্রবার রাতে গ্রেপ্তার হন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যরিস্টার মওদুদ আহমদ, এম কে আনোয়ার, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, চেয়ারপারসনের ‍উপদেষ্টা আব্দুল আউয়াল মিন্টু এবং খালেদা জিয়ার বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস।

শুক্রবার রাতে জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের এ প্রেপ্তারের প্রতিক্রিয়া জানান রুহুল কবীর রিজভী। এরপর প্রেসক্লাবের চারপাশে পুলিশ মোতায়েন থাকায় গ্রেপ্তার আতঙ্কে গভীর রাজ পর্যন্ত তিনি প্রেসক্লাবে অবস্থান করেন। ভোররাতে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যান। এরপর সকালে দলীয় কার্যালয়ে ঢোকেন বিএনপির এ নেতা।

দলীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘রাত সাড়ে ৩টার দিকে অনেক কষ্টে পুলিশের দৃষ্টি এড়িয়ে প্রেসক্লাব থেকে বের হই। পুলিশ আমার গাড়িকে ধাওয়া করে। পরে আমি নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যায়। এরপর ভোরে দলীয় কার্যালয়ে আসি।’

তিনি বলেন, ‘ কার্যালয়ের স্টাফদের কাছে তারা (পুলিশ) আমার খোঁজ-খবর নিচ্ছে। আমাকে হুমকি দিচ্ছে। এ অবস্থায় আমি নিরাপত্তাহীন ও বিপন্ন বোধ করছি।’

শেয়ার করুন