ইয়েমেনে সাম্প্রদায়িক লড়াইয়ে নিহত ৫৫

0
100
Print Friendly, PDF & Email

উত্তর ইয়েমেনে শিয়া ও সুন্নি সালাফিপন্থীদের মধ্যে চার দিনব্যাপী লড়াইয়ে শনিবার পর্যন্ত ৫৫ জন নিহত হয়েছেন। নিহতরা সবাই সালাফিপন্থী বলে জানিয়েছেন গোষ্ঠিটির এক মুখপাত্র।

গত বুধবার সুন্নি সালাফিপন্থীদের শহর দামাজে হামলা চালায় বিদ্রোহী শিয়া হাউথি গোষ্ঠি, যা শনিবার শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত অব্যাহত ছিল।

উত্তর ইয়েমেনের সৌদি আরব সীমান্তের এই এলাকাটির ওপর দেশটির সরকারের নিয়ন্ত্রণ তেমনে জোরালো নয়। তারপরও দুপক্ষের মধ্যে একটি যুদ্ধবিরতি আয়োজনের জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছে ইয়েমেন সরকার।

শুক্রবার বিকেলে দুপক্ষের মধ্যে একটি যুদ্ধবিরতি কার্যকর হয়েছিল বলে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল। কিন্তু লড়াই শনিবার পর্যন্ত অব্যাহত ছিল বলে সালাফিপন্থীদের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন।

হাউথিদের রকেট ও ট্যাংকের গোলাবর্ষণে ৫৫ জন সালাফিপন্থী নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই মুখপাত্র।

শনিবারের লড়াই সম্পর্কে নিরপেক্ষ সূত্র থেকে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি আর এ লড়াইয়ে হাউথি পক্ষের হতাহতেরও কোনো বিবরণও পাওয়া যায়নি।

বুধবার হাউথিদের পক্ষ থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে লড়াইয়ের উস্কানি দেয়ার জন্য সালাফিদের দায়ী করা হয়। সালাফিরা দামাজে কয়েক হাজার বিদেশী যোদ্ধা এনে জড়ো করেছে বলে বিবৃতিতে অভিযোগ করা হয়।

অপরদিকে সালাফি গোষ্ঠির পক্ষ থেকে ওই সব বিদেশীদের ধর্মতত্ত্বের ছাত্র বলে দাবী করা হয়েছে। দামাজে ১৯৮০ সালে প্রতিষ্ঠিত এক মাদ্রাসায় তারা পড়তে এসেছেন বলে দাবী করা হয়।

হাউথিদের রকেট হামলায় অন্যান্য ক্ষয়ক্ষতির সঙ্গে মাদ্রাসাটির ছাত্রাবাসেরও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করেছে তারা। হাউথিরা কয়েক সপ্তাহ ধরে দামাজ অবরোধ করে রেখেছে বলেও অভিযোগ করেছে সালাফিরা।

উত্তর ইয়েমেনের পর্বতময় প্রদেশে সাআদা’র একটি ছোট শহর দামাজ। এর নিকটবর্তী বড় শহর সাআদা হাউথি নিয়ন্ত্রিত। দীর্ঘদিন ধরেই প্রদেশটির ওপর কেন্দ্রিয় সরকারের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই।

শেয়ার করুন