আন্দোলন মোকাবিলায় আ.লীগের ১২ দল

0
48
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ ১২ দলে ভাগ হয়ে বিএনপি-জামায়াতের আন্দোলন মোকাবিলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই দলগুলোয় থাকছেন স্থানীয় সাংসদ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা মহানগরের নেতারা।
এই ১২টি দলের নেতৃত্বে যাঁরা থাকছেন তাঁরাই রাজধানীজুড়ে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাদের মধ্যে সমন্বয় সাধনের কাজটি করবেন।
খোঁজখবর নিয়ে জানা গেছে, ২৫ অক্টোবরের সমাবেশকে কেন্দ্র করে যেকোনো ধরনের নাশকতা ঠেকাতে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন যুবলীগের নেতা-কর্মীরা এরই মধ্যে রাস্তায় নেমেছেন। নেতা-কর্মীদের কাউকে কাউকে আগামীকাল শুক্রবার থেকে রাজধানীর মসজিদগুলোতে অবস্থানের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, ‘আমাদের কাছে তথ্য আছে, বিভিন্ন জায়গা থেকে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসীরা ঢাকা ও এর আশপাশের মসজিদগুলোতে অবস্থান নিয়েছে। এজন্য কাল থেকে মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মীরা মসজিদ এলাকায় অবস্থান নেবে।’ তাঁর ভাষায়, ‘মসজিদকেন্দ্রিক নাশকতা’ ঠেকাতে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী প্রথম আলো ডটকমকে বলেন, ‘ঢাকা মহানগর এলাকায় অপরিচিত ও সন্দেহভাজন কাউকে দেখলেই গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’ এ ছাড়া আগামীকাল ১৮-দলীয় জোটের সভাকে কেন্দ্র করে ‘নাশকতা’ ঠেকাতে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও দলীয় কার্যালয়ে নেতা-কর্মীদের অবস্থান নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান। পুরো বিষয়টি সমন্বয়েই মূলত ১২টি দল গঠন করা হয়েছে।
তবে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ বলছে, এই দলগুলো আগামীকালের সমাবেশের পরও কার্যকর থাকবে। মহানগর আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ কয়েকজন নেতা বলেন, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরীর নেতৃত্বে রাজধানীর ১০৩টি সাংগঠনিক থানা ও ১৭টি ইউনিয়নে এ দলগুলো আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত কাজ করবে।
সর্বাত্মক প্রস্তুতি ছাত্রলীগ ও যুবলীগের: ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম বলেছেন, দলের নেতা-কর্মীদের গায়ে একটি আঘাত লাগলে পাল্টা ১০টি আঘাত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া সোহরাওয়ার্দী উদ্যান থেকে কেউ যেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢুকতে না পারে, সে ব্যাপারে টিএসসি, শাহবাগ ও দোয়েল চত্বর এলাকায় নেতা-কর্মীদের অবস্থান নিতে বলা হয়েছে বলে তিনি জানান। এদিকে আজ বিকেল থেকেই মাঠে নেমেছে যুবলীগ। প্রতিদিন বিকেল চারটা থেকে ঢাকা মহানগরসহ সব ইউনিটে কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী যুবলীগের নেতা-কর্মীদের থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন। যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন মহি বলেছেন, ‘জনগণের জানমাল রক্ষায় যুবলীগের গুরুত্ব রয়েছে। এজন্য আজ বিকেল থেকেই মাঠে নেমেছে যুবলীগ।’

শেয়ার করুন