গণগ্রেফতার করে গণরোষ থেকে শেষ রক্ষা হবে না: ছাত্রশিবির

0
62
Print Friendly, PDF & Email

দেশব্যাপী অব্যাহত গণগ্রেফতার ও সরকারের অগণতান্ত্রিক আচরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে শিবির সেক্রেটারী মোঃ আবদুল জব্বার বলেছেন, ফ্যাসিষ্ট আওয়ামী সরকার দেশ ও ইসলাম বিরোধী কর্মকাণ্ডের কারণে গণবিচ্ছিন্ন হয়ে এখন গণগ্রেফতার করে অবৈধভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকার ষড়যন্ত্র করছে।

বৃহস্পতিবার গণমাধ্যম পাঠানো এক বিবৃতিতে শিবির নেতা অভিযোগ করেছেন, সরকারের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে পুলিশ অন্যায়ভাবে ছাত্রশিবির সিলেট জেলা পূর্বের সভাপতি এস. এম. মনোয়ার হোসেন ও এমসি কলেজ সেক্রেটারী মঞ্জুর আহমেদকে গ্রেফতার করেছে।

এছাড়াও গতকাল কুমিল্লায় ১৩ জন, সাতক্ষিরায় ৪ জন, গাজিপুরে ১১ জনসহ সারাদেশে শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নেতাকর্মীদের বাসা-বাড়িতে গিয়ে তল্লাশির নামে হয়রানি ও পরিবারের সদস্যদের সাথে দূর্ব্যবহার করছে।

শিবির সেক্রেটারী বলেন, আওয়ামী অপশাসনের অবসান দেখতে দেশের আপামর জনগন অধির আগ্রহে অপেক্ষা করছে। এই সরকারের পতন ঘটাতে ছাত্রসমাজ সর্বাতœক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। সুতরাং গ্রেফতার, নির্যাতন করে পার পাওয়া যাবে না।

গ্রেফতার নির্যাতন আর গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে বাধাগ্রস্থ করলে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন প্রতিরোধ আন্দোলনে রুপ নেবে। আর সেই প্রতিরোধ আন্দোলন মোকাবেলা করার ক্ষমতা গণবিচ্ছিন্ন আওয়ামী সরকারের নেই। সরকারের চূড়ান্ত পতন নিশ্চিত না করে ছাত্রজনতা ঘরে ফিরবে না।

তিনি বলেন, দলীয় এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে গিয়ে গত পাঁচ বছর বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের উপর বিশেষ করে জামায়াত ছাত্রশিবির নেতাকর্মীদের উপর যে বর্বর নির্যাতন চালানো হয়েছে তাতে পুলিশ বাহিনীর উপর জনগনের আস্থা হারিয়ে গেছে।

শিবির নেতা বলেন,জনগন আশা করে, দেশের আইন-শৃঙ্খলায় নিয়োজিত বাহিনী অন্তত সরকারের অন্তিম সময়ে আওয়ামীলীগের অপকর্মের হাতিয়ার হবে না। জনগনের আশার বিপরীতে যদি গণগ্রেফতার চলতেই থাকে, তাহলে গণগ্রেফতার অভিযানের সাথে সংশ্লিষ্ট প্রত্যেককেই ছাত্রজনতা দাঁতভাঙ্গা জবাব দেবে।

তিনি অবিলম্বে গ্রেফতারকৃত জামায়াত-শিবিরের সকল নেতাকর্মীকে মুক্তি দিতে ও অব্যাহত গণগ্রেফতার বন্ধ করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

শেয়ার করুন