সুলতান সালাউদ্দিন রিমান্ডে, টাঙ্গাইলে আজ হরতাল সরকার সমঝোতা প্রশ্নে আন্তরিক নয়: ফখরুল

0
114
Print Friendly, PDF & Email

গাড়ি চাপা দিয়ে পুলিশকে হত্যাচেষ্টার মামলায় ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও বর্তমান কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুকে ছয় দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে আদালত তাঁর জামিনের আবেদন নাকচ করে দেন।

গত সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে সুলতান সালাউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এর প্রতিবাদে তাঁর নিজ জেলা টাঙ্গাইলে আজ বুধবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে জেলা বিএনপি।

এদিকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, যখন সমঝোতার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া প্রস্তাব দিচ্ছেন, তখন এ ধরনের আচরণ প্রমাণ করে সরকার সমঝোতা প্রশ্নে আন্তরিক নয়। গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম ওই ঘটনায় জড়িত পুলিশ সদস্যের অপসারণ ও তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান। তিনি বলেন, বিএনপি শান্তিপূর্ণ আলোচনার মাধ্যমে সংকটের সমাধান চায়। কিন্তু এটিকে দুর্বলতা মনে করলে সরকার ভুল করবে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পল্টন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) বাবুল হোসেন গতকাল সুলতান সালাউদ্দিনকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন।

গতকাল আদালতে দেওয়া প্রতিবেদনে বলা হয়, আসামি কী উদ্দেশ্যে গাড়ি চাপা দিয়ে কর্তব্যরত পুলিশকে হত্যার চেষ্টা করেছিলেন, তা জানা প্রয়োজন। তা ছাড়া ঘটনার নির্দেশদাতা ও প্ররোচনাদাতাদের বিষয়ে তথ্য জানা, এ হামলার রহস্য উদ্ঘাটনসহ অন্যান্য পলাতক আসামির নাম, ঠিকানা সংগ্রহ করে তাঁদের গ্রেপ্তার করার লক্ষ্যে আসামিকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন।

আসামিপক্ষের আইনজীবীরা আদালতকে বলেন, ২৫ অক্টোবরের সমাবেশ সামনে রেখে এ ধরনের ষড়যন্ত্র করার চেষ্টা হচ্ছে। তিনি বলেন, ঘটনার সময় সুলতান সালাউদ্দিন গাড়িতে বসা ছিলেন। তাঁকে জোর করে গাড়ি থেকে নামানো হয়েছে। রিমান্ডে নেওয়ার কোনো যৌক্তিক কারণ রাষ্ট্রপক্ষ উপস্থাপন করতে পারেনি। এ ছাড়া সালাউদ্দিনের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে, তা মিথ্যা ও বানোয়াট। তাই তিনি জামিন পেতে পারেন।

আসামিপক্ষে শুনানি করেন মাসুদ আহমেদ তালুকদার, গোলাম মোস্তফা খান, মোহাম্মদ আলী প্রমুখ।

 উল্লেখ্য, সোমবার রাতে নয়াপল্টনে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত রক্ষীদের (সিএসএফ) সঙ্গে পুলিশের বাগিবতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে তা হাতাহাতিতে রূপ নেয়। পরে সিএসএফের গাড়ি থেকে সুলতান সালাউদ্দিনকে আটক করে পুলিশ। গাড়ি চাপা দিয়ে পুলিশকে হত্যার চেষ্টা, পুলিশের ওপর হামলা ও বেআইনিভাবে সংঘবদ্ধ হয়ে গুরুতর আঘাত করার অভিযোগে সুলতান সালাউদ্দিনসহ ৪০ জনের বিরুদ্ধে পল্টন থানায় দুটি মামলা করে পুলিশ। এর মধ্যে একটি মামলায় সালাউদ্দিনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে হাজির করা হয় ও রিমান্ড চাওয়া হয়। রিমান্ড মঞ্জুর হওয়া মামলায় সালাউদ্দিন ছাড়াও খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষী কর্নেল (অব.) আবদুল মজিদসহ অজ্ঞাতনামা আরও ১৫-২০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি জানান, সুলতান সালাউদ্দিনকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে আজ বুধবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে জেলা বিএনপি। গতকাল সকালে জেলা বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনগুলোর উদ্যোগে স্থানীয় শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যান থেকে হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করা হয়। মিছিল শেষে পুরোনো বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আয়োজিত পথসভায় জেলা বিএনপির সহসভাপতি ছাইদুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ ইকবাল বক্তব্য দেন।

শেয়ার করুন