প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ জাতিকে হতাশ করেছে: খালেদা জিয়া

0
55
Print Friendly, PDF & Email

প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ জাতিকে হতাশ করেছে: খালেদা জিয়া
বিকেল ৪টায় রাজধানীর হোটেল ওয়েস্টিনে বলরুমে সংবাদ সম্মেলন শুরু হয়।
বিরোধী দলীয় নেতা ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, জাতির উদ্দেশে দেয়া প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ জাতিকে হতাশ করেছে।

তিনি বলেন, দেশের জাতীয় ঐক্য বিপন্ন। এ অবস্থায় জাতীয় ঐক্য ফিরিয়ে আনা জরুরি হয়ে পড়েছে। গণতন্ত্রের জন্য ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

সোমবার বিকেল সোয়া ৪টায় রাজধানীর হোটেল ওয়েস্টিনের বলরুমে সংবাদ সম্মেলন তিনি জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, বিরোধদলের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে সরকার বাধা দিচ্ছে।

দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি এবং এ সম্পর্কে বিএনপি ও ১৮ দলীয় জোটের অবস্থান তুলে ধরতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।

১৮ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ, বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যবৃন্দ ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবসহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত রয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় অন্তর্বর্তী সরকার গঠনের প্রস্তাব দেওয়ার একদিন পর রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের জাতীয় কনভেনশনে অংশ নেন খালেদা জিয়া।

সেখানে তিনি আবারও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ করে বলেন, “আপনার অধীনে কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব না। তিনি বলেন, “এখনও সময় আছে, সংবিধান সংশোধন করুন।”

শুক্রবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠনের প্রস্তাব দিয়ে ওই মন্ত্রিসভায় বিরোধী দলের সংসদ সদস্যদের নাম দেওয়ারও আহ্বান জানান।

সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীর ফলে বর্তমান সংসদের মেয়াদ শেষের আগের ৯০ দিনের মধ্যে অর্থাৎ ২৫ অক্টোবর থেকে ২৪ জানুয়ারির মধ্যে আগামী দশম সংসদ নির্বাচন হবে। এদিকে, সংসদের চলতি অধিবেশন ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত চালানোর সিদ্ধান্ত রয়েছে কার্য উপদেষ্টা কমিটির।

এর মধ্যে ‘নির্দলীয় সরকার পদ্ধতির’ বিল সংসদে পাস না করলে আগামী ২৫ অক্টোবর থেকে সরকার পতনের কঠোর আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলীয় নেতাদের বলেছেন, ২৪ অক্টোবরের পর সংসদ চলতে পারবে না, এটা সংবিধানের কোথাও লেখা নেই।

শেয়ার করুন