প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র মঙ্গলবার আগম

0
53
Print Friendly, PDF & Email

বর্ণিল সাজে সেজেছে দিনাজপুর। ডিজিটাল ব্যানার,ফ্যাস্টুন,প্লাকার্ড আর সুসজ্জিত তোরণে ছেয়ে গেছে শহরসহ আশপাশ এলাকা। দীর্ঘ ৫ বছর পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল মঙ্গলবার দিনাজপুরে আসছেন।

তাকে স্বাগত জানাতে দিনাজপুরবাসী’র এতো আয়োজন।মহাজোট সরকারের শেষ মূহুর্তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২২ অক্টোবর দিনাজপুরের ঐতিহাসিক গোর-এ-শহীদ বড় ময়দানে জনসভায় নির্বাচনী প্রচারণা ও চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে দিক নির্দেশনা মূলক ভাষণ দিবেন তিনি। তার জনসভার দিকে তাকিয়ে আছে গোটা জাতি তথা বিশ্ববাসী।

এমন মন্তব্য সংশ্লিষ্ট রাজনৈতিক নেতাদের । পাশাপাশি দিনাজপুর জেলার ২৮টি প্রকল্প উদ্বোধন এবং ৮টি প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের ফলক উম্মোচন  করবেন তিনি। প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার দুপুর ১টায় দিনাজপুরে পৌছুবেন এবং বিকেল ৩ টায় ঐতিহাসিক গোর-এ-শহীদ ময়দানে ভাষন দিবেন। আলোচিত ২৫

অক্টোবরের ২ দিন আগে এই জনসভা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন ও তাৎপর্যময় হিসেবে দেখছেন আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানাতে মাতায়ারা দিনাজপুরবাসী। আইন শৃংখলা বাহিনীতে তিনটি বলয়ে সাজিয়ে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার করেছে স্থানীয় প্রশাসন। র‌্যাব,পুলিশ সহ বিশেষ গোয়েন্দা সহ আইন শৃংখলা বাহিনীর এক হাজার ৩’শ কর্মকর্তা ও সদস্য নিয়োজিত করা হয়েছে এই বিশেষ নিরাপত্তায়। কঠোর নজরদারীতে রেখেছেন স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্সেস (এসএসএফ) সদস্য সহ গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। এ তথ্য দিয়েছেন,দিনাজপুর পুলিশ সুপার সারোয়ার মূর্শেদ শামীম।

দীর্ঘ ৫ বছর পর আবারও নির্বাচনী প্রচারণার অংশ হিসেবে  মহাজোট সরকারের শেষ মূহুর্তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনাজপুরে আসছেন। কিন্তু ভোট দিয়ে দিনাজপুর জেলার ৬টি আসন আওয়ামীলীগকে উপহার দিলেও কোন প্রত্যাশা পূরণ করা হয়নি জেলাবাসী’র। দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল,চিত্রশ্ল্পিী আব্দুর রাজ্জাক,হোটেল ব্যবসায়ী রুস্তম আলী সহ এমন অভিযোগ অনেকের।

শেখ হাসিনা গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে নির্বাচনী প্রচারণা জনসভায় ভাষণ দিবেন। জনসভায় চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে দিক নির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখবেন তিনি। তার জনসভার দিকে তাকিয়ে আছে গোটা জাতি তথা বিশ্ববাসী। এমন মন্তব্য স্থানীয় সংসদ সদস্য ইকবালুর রহিমের। তিনি জানিয়েছেন,শেখ হাসিনার জনসভাকে জন সমুদ্রে পরিনত করার লক্ষে প্রচার ও সমন্বয় সভা সহ সকল প্রস্তুতি নিয়েছে জেলা আওয়ামীলীগ।১০ লাখেরও বেশী মানুষ এ জনসভায় সমাগম ঘটবে।

স্মরণকালের সর্ব বৃহত্ত হবে এই জনসভা- এমন দাবী বাংলাদেশ আওয়ামীগ কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধূরী’র। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল চালু, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরমানু বিজ্ঞানী ড.  ওয়াজেদ আলী একাডেমিক ভবন, দিনাজপুর-পঞ্চগড় রেলওয়ে ডুয়েলগেজ রুট, শিক্ষা বোর্ড ভবন, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ভবন, পাসপোর্ট অফিস, বোচাগঞ্জ আব্দুর রৌফ চৌধূরী অডিটোরিয়াম,দেশের সর্ব বৃহত্ত আত্রাই নদীর রাবার ড্যাম,বিরল পৌর সভা ভবন, মুক্তিযোদ্বা কমপ্লেক্স সহ দিনাজপুর জেলার বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার উদ্বোধন এবং ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের ফলক উম্মোচন  করবেন।  সেই সাথে দিনাজপুর পৌরসভাকে সিটি কর্পোরেশনের ঘোষণা দেয়ারও কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী’র।

শেয়ার করুন