ছবিতে নগ্ন উপস্থিতির কারণে ভাঙনের মুখে ঋতুপর্ণার সংসার

0
68
Print Friendly, PDF & Email

এবার ভাঙনের মুখে টালিগঞ্জের নন্দিত অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের সংসার। ছবিতে নগ্ন দৃশ্যে অভিনয়ের কারণেই সংসারে ভাঙনের সুর বেজে উঠেছে। মতের অমিলের কারণে স্বামী সঞ্জয় চক্রবর্তীকে ছেড়ে এখন আলাদা থাকছেন তিনি। তিনি অভিযোগ করে বলেন, স্বামীর অনুশাসনে আমার জীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে।
জানা গেছে, সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘মুক্তি’কে ঘিরেই ঋতু-সঞ্জয়ের মধ্যে মনোমালিন্যের সূত্রপাত ঘটে। ছবি রিলিজের আগেই ‘ঋতু-রাজদীপ হট-সিন’ নামের ভিডিও ইন্টারনেটে প্রকাশ পায়। এটা দেখেই সঞ্জয় রীতিমতো তেলে-বেগুনে জ্বলে উঠেন। এর জের ধরেই তিনি ঋতুর সঙ্গে একাধিকবার বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এমনকি ঋতুর গায়ে সঞ্জয় রীতিমতো হাতও তোলেন। ঋতুও রাগ করে বাড়ি ছেড়ে এক ঘনিষ্ঠ বন্ধুর বাড়িতে চলে যান। সঞ্জয়কে এখন রীতিমত তিনি এড়িয়েও চলছেন। দশমীর দিন সিঁদুর খেলার সময় কর্তা-গিন্নি একসঙ্গে থাকলেও ঋতু বিকেলের ফ্লাইটে মেয়েকে নিয়ে সিঙ্গাপুর চলে যান।
এ প্রসঙ্গে ঋতুপর্ণার এক ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, ইন্টারনেটে রাজদীপের সঙ্গে ঋতুর আবেগঘন দৃশ্য দেখে সহ্য করতে পারেননি তার স্বামী সঞ্জয় চক্রবর্তী। তাই ঋতু এখন যা-ই করতে যাচ্ছেন, তাতেই তিনি বাধ সাধছেন। ঋতুর সঙ্গে সম্পর্ক রাখবেন না বলেও সঞ্জয় জানিয়েছেন। সূত্রটি জানান, ঋতুর সহঅভিনেতা শিলাজিৎ মজুমদারই সঞ্জয়কে প্রথম এ ভিডিওর সন্ধান দেন। শিলাজিৎ ঠাট্টার ছলেই ঋতুর বরকে এসব দেখিয়েছিলেন। এর আগে ২০১১ সালে ‘তিন কন্যা’ ছবিতেও ঋতুকে একাধিক অর্ধনগ্ন দৃশ্যে দেখা গেছে। তবে ওই সময় সঞ্জয় স্ত্রীর ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয়ে আপত্তি তোলেননি।
প্রসঙ্গত ১৯৯৯ সালে সঞ্জয় চক্রবর্তীর সঙ্গে ঋতুপর্ণা সংসার শুরু করেন। ঋতুর ঘরে অঙ্কন এবং রিসনা নিয়া নামের এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। বর্তমানে ঋতুপর্ণা একাধিক ছবির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

শেয়ার করুন