রাজধানীর ৯০ ভাগ বিদ্যুৎ গ্রাহক পাচ্ছেন কাঙ্ক্ষিত সেবা, নতুন সংযোগে ভোগান্তিতে নগরবাসীরা

0
60
Print Friendly, PDF & Email

বিদ্যুৎ উৎপাদন বেড়েছে, কমেছে লোডশেডিং। এমন দাবি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর। পাশাপাশি সিস্টেম লস কমিয়ে ৯০ ভাগ গ্রাহককে কাঙ্ক্ষিত সেবা দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে রাজধানী ঢাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহে নিয়োজিত দুই প্রতিষ্ঠান ডিপিডিসি ও ডেসকো। অন্যদিকে বিল আদায়ের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা এলেও নতুন সংযোগ নিতে ভোগান্তির অভিযোগ করছেন নগরবাসী।

রাজধানীর শংকর এলাকার ডিপিডিসির গ্রাহক সুষমা রহমানের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে একটি মাত্র মিটারে চলছে ছয়টি ফ্লাটে বিদ্যুত সরবরাহ। ফলে দিনের বেশির ভাগ সময়েই লোভোলটেজের ভোগান্তি পোহাতে হয় তাদের।

ডিপিডিসির গ্রাহক সুষমা রহমান অভিযোগ করে বলেন, নতুন সংযোগের জন্য দেড় বছর আগে আবেদন করা হয়েছে। কিন্তু নানান তালবাহানা করে সময়ক্ষেপণ করছেন বিদ্যুৎ কর্মচারীরা। ১৯৯৮ সাল থেকে যাত্রা শুরু ঢাকা পাওয়ার ইলেকট্রিক সাপলাই কোম্পানি ডেসেকো। অন্যদিকে আরেক প্রতিষ্ঠান ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড ডিপিডিসির জন্ম ২০০৫ সালে। স্মার্ট মিটারিং, ইন্টারনেটে বিদ্যুত বিল প্রদান সহ নতুন প্রযুক্তির ব্যবহার বিদ্যুতের অপচয় কমিয়ে, বাড়িয়েছে সেবার মান বেড়েছে, এমন দাবী করছে প্রতিষ্ঠান দুটি।

এদিকে লোড শেডিং ও ভুতুড়ে বিলের অভিযোগ করেছেন ডেসকোর গ্রাহকেরা। তাদের দাবি মিটার কারসাজি করে বিল বাড়িয়ে দেয় বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজন।
এই বিষয়ে জানতে চাইলে ডেসকো পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মো. আরজাদ হোসেন বলেন, লোড শেডিংএর পরিমান কমায় এবং নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ব্যাবহারের কারণে বিল বেশী হতে পারে। কেবল নতুন নতুন প্রযু্ক্তির ব্যবহার নয়, হয়রানি কমিয়ে সত্যিকার অর্থে গ্রাহকের সেবার দিকে মনোযোগী হবার আহ্বান জানিয়েছেন বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীরা।

শেয়ার করুন