মালালার আইকন হয়ে ওঠা

0
98
Print Friendly, PDF & Email

এক বছর আগে ঠিক এই দিনে তালেবান গুলি করে হত্যা করতে চেয়েছিল পাকিস্তানের রক্ষণশীল এলাকার এক সাধারণ কিশোরীকে। তার অপরাধ ছিল মেয়েদের শিক্ষার জন্য সোচ্চার হওয়া।

সোয়াত উপত্যকায় সেই সাধারণ কিশোরীর কণ্ঠ যে এত সহজে রুদ্ধ করা সম্ভব নয় তা বুঝতেই পারেনি বিশ্বর ত্রাস জঙ্গি সংগঠনটি।

২০০৭ সালে মালালার মাতৃভূতি সোয়াত উপত্যকায় নিয়ন্ত্রণ তালেবানের হাতে চলে যায়। সোয়াত উপত্যকায় নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পরই বালিকাদের স্কুল বন্ধ করার নির্দেশ দেয় তালেবান।

তালেবান যখন সোয়াত উপত্যকায় বালিকাদের স্কুল বন্ধ করার নির্দেশ দেয় তখন মালালার বয়স ছিল ১১ বছর। তালেবান অধ্যুষিত সোয়াত উপত্যকায় নারীশিক্ষার ওপর তালেবানি নিষেধাজ্ঞা জারির বিরুদ্ধে বিবিসি অনলাইনের ব্লগে ‘গুল মাকাই’ ছদ্মনামে লেখালেখি শুরু করলে পরিচিত হয়ে ওঠে কিশোরী মালালা ইউসুফজাই।
২০০৯ সালে সোয়াত থেকে তালেবানের উৎখাত করে সরকার। ফের স্কুলে যাওয়ার পথ সুগম হয় কিশোরী মালালার।

কিন্তু তালেবানের অত্যাচারের বিরুদ্ধে লেখালেখি করে এরইমধ্যে তাদের চক্ষুশূল হয়ে ওঠেছিল মালালা। তাই ২০১২ সালের ৯ অক্টোবর স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে তাকে গুলি করে পালিয়ে যায় তালেবান।

কিন্তু মৃত্যুর কাছে এতো সহজেই হার মানার মেয়ে নয় মালালা। মালালাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাকিস্তান থেকে বার্মিংহামে আনা হয়। সেখানেই মালালা সুস্থ হয়ে ওঠে।

তবে তালেবানের হুমকিতে তার প্রিয় মাতৃভূমিতে ফিরতে পারেনি এই কিশোরী। বৃটেনেই নতুন করে সাজিয়ে নিয়েছে জীবন। থেমে যায়নি তার প্রতিবাদী কণ্ঠও। বিশ্বের সব শিশু বিশেষ করে কিশোরীদের শিক্ষা অধিকার রক্ষায় কাজ করে যাচ্ছে সে।

এসবের স্বীকৃতিস্বরূপ মালালার ঝুলিতে জমা হয়েছে বেশ কিছু উল্লেখযোগ্য পুরস্কার। জাতিসংঘের অধিবেশনে ভাষণ দেয়ার সৌভাগ্যও হয়েছে তার। ২০১৩ সালের শান্তিতে নোবেলের দৌড়েও এগিয়ে আছে এই কিশোরী।

নারী অধিকার আন্দোলন নিয়ে কাজ করার লক্ষ্যে রাজনীতিবিদ হতে চায় মালালা। ‘আই অ্যাম মালালা : দ্য গার্ল হু স্টুড আপ ফর এডুকেশন অ্যান্ড ওয়াজ শট বাই দ্য তালেবান’ নামের আত্মজীবনীতে এ কথাই জানিয়েছে মালালা।

আত্মজীবনীতে মালালা বারবার পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর কথা টেনে আনে।

তালেবানের অব্যাহত হুমকি সত্ত্বেও একদিন সে দেশে ফিরবে, রাজনীতিতে যুক্ত হবে। যদিও সে জানে সুযোগ পেলেই তালেবান তার ওপর চড়াও হবে। তালেবানের ভয়ে পিছিয়ে পড়ার মেয়ে যে মালালা নয়, সেটা বিশ্ববাসী এরই মধ্যে জেনে গেছে

শেয়ার করুন