অজানা আতঙ্কে দেশবাসী

0
77
Print Friendly, PDF & Email

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, দেশবাসী আজ অজানা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে।অজানা আতঙ্কে দেশবাসী
২৫ অক্টোবর কি হবে, না হবে- তা নিয়ে জাতি উদ্বিগ্ন। কেউ জানেন না আসলে কি হবে। গতকাল বনানীর কার্যালয়ে জাতীয় পার্টি চট্টগ্রাম উত্তর ও দক্ষিণ জেলা শাখার নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির যৌথ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং এরশাদের রাজনৈতিক উপদেষ্টা জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর সভাপতিত্বে সভায় এরশাদ আরও বলেন, আওয়ামী লীগ যদি নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি না মানে এবং সব রাজনৈতিক দল যদি নির্বাচন বর্জন করে, তবে জাতীয় পার্টি সে নির্বাচনে অংশ নেবে না। কাউকে ক্ষমতায় বসাতে নির্বাচনী ফাঁদে পা দেব না। তিনি বলেন, দেশ আজ অনিবার্য সংঘাত আর রক্তপাতের দিকে এগিয়ে চলছে। জাতি এ সংঘাত ও রক্তপাত থেকে মুক্তি চায়। দুই দলের ক্ষমতায় যাওয়ার লড়াইয়ে দেশবাসী আজ দিশাহারা। ক্ষমতা অাঁকড়ে থাকার জন্য তারা দেশকে বার বার সংঘাতের পথে ঠেলে দিচ্ছে। দুই দল পালাক্রমে দেশ আর জাতিকে জিম্মি করে ক্ষমতায় থাকতে চায়। আমি যখন ক্ষমতায় ছিলাম, শুধু রক্তপাত এড়াতে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করেছিলাম। জাতীয় পার্টি সংঘাত চায় না। আমরা রক্তপাতে বিশ্বাস করি না। জনগণ আমাদের শক্তি। শাহবাগ চত্বরের কারণে দেশ আজ আস্তিক আর নাস্তিক- এই দুই ভাগে বিভক্ত হয়েছে। তাই মানুষ আজ শান্তি চায়, পরিবর্তন চায়। একমাত্র জাতীয় পার্টি পারে এদেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটাতে। আমরাই পারি দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব অক্ষুণ্ন রেখে জাতিকে অর্থনৈতিক মুক্তি দিতে। জাতীয় পার্টি আজ জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই দেশ ও জাতিকে সংঘাতের হাত থেকে রক্ষা করতে আমাদের অবশ্যই ঐক্যবদ্ধভাবে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। এ সময় আরও বক্তব্য দেন সোলায়মান আলম শেঠ, তাজুল ইসলাম চৌধুরী, সিরাজুল ইসলাম, রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, নুরুচ্ছফা সরকার, শায়েস্তা খান চৌধুরী, মেজবাহউদ্দিন আহমেদ আকবর প্রমুখ।

শেয়ার করুন