কেরোসিন ঢেলে ঘুমন্ত স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা

0
60
Print Friendly, PDF & Email

আগুন ধরিয়ে দিতেই ঘুম ভেঙে গিয়েছিলো লাবনী আক্তারের (২৮)। তখন রাত দেড়টা। সারা গায়ে আগুন নিয়ে চিৎকার করে ফ্ল্যাটের বাইরে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন তিনি। স্বামী মানিক চাঁন তখন বিছানায় বসে তাকিয়ে দেখছেন। পরে পাশের ফ্ল্যাটে থাকা স্বজনেরা এসে আগুন নিভিয়ে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বাঁচতে পারেননি লাবনী।
গত রোববার গভীর রাতে রাজধানীর জুরাইন মেডিকেল রোডের বাসায় লাবনীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন ইয়াবা-আসক্ত স্বামী মানিক চাঁন। গতকাল সোমবার রাত ১১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। মারা যাওয়ার আগে স্বজনদের কাছে ভয়াবহ এই ঘটনার কথা বলে গেছেন। গতকাল সন্ধ্যার পর থেকে তিনি আর কথা বলতে পারছিলেন না।
চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন. আগুনে লাবনীর শ্বাসনালীসহ শরীরের ৫৩ শতাংশই পুড়ে গিয়েছিল।
লাবণীর বাবা হেলাল উদ্দিন খান জানান, ১২ বছর আগে কিশোরী মেয়েকে মানিক চাঁনের সঙ্গে বিয়ে দেন। স্ত্রী ও দুই ছেলে তাফসির (৬) এবং উদয়কে (২) নিয়ে জুরাইনের মেডিকেল রোডের ৪৩৫ নম্বর (পৈত্রিক) বাড়ির তৃতীয় তলায় থাকতেন মানিক। সংসারের শুরু থেকেই মানিক কিছু করতেন না, বাড়ির ভাড়া তুলেই চলতো সংসার। তবে অশান্তি ছিল না। কিন্তু চার বছর আগে মানিক ইয়াবায় আসক্ত হয়ে পড়েন। এরপর শুরু হয় অশান্তি। প্রায়ই স্ত্রীকে মারধর-গালিগালাজ করতেন তিনি।
লাবণীর মা লাইজু বেগম বলেন, মানিকের অত্যাচার চুড়ান্ত হয়ে উঠেছিলো কয়েকদিন ধরেই। রোববার রাতে প্রচণ্ড আক্রোশে মানিক স্ত্রীকে বলেন, ‘আইজ তোর শ্যাষ দিন।’ কিন্তু মাদকাসক্ত স্বামীর চোটপাটে অভ্যস্ত লাবনী তাঁর কথায় গুরুত্ব না দিয়ে শুয়ে পড়েন। এরপর রাত দেড়টায় ঘুমন্ত লাবনীর ওপর কেরোসিন ঢেলে দিয়াশলাইয়ের কাঠি জ্বালিয়ে দেন মানিক। এ সময় লাবনীর আর্তচিৎকারে পাশের ফ্ল্যাটে থাকা মানিকের ভাই-ভাবী ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন।
লাবনীর স্বজনেরা জানান, লাবনীর শ্বশুর আলেক চাঁন বেপারির ওই এলাকায় অনেক ভূসম্পত্তির মালিক। আলেক চাঁনের তিন স্ত্রী ও ১৬ সন্তান। এতোবড় পরিবারেও সবাই লাবনীকে অনেক স্নেহ করতেন। কিন্তু চার বছর আগে মানিক চাঁন নেশাসক্ত হওয়ার পরই সব বদলে যায়।
কদমতলী থানার উপপরিদর্শক আবু তাহের জানান, এ ঘটনায় গতকাল লাবনীর বাবা হেলাল উদ্দিন খান বাদি হয়ে কদমতলী থানায় মানিক চাঁনের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টা মামলা করেছেন। এখন এই মামলাটি হত্যা মামলায় রূপ নেবে। মানিককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

শেয়ার করুন