পাঁচ না, ছয়বারের এমপি: সাকা

0
68
Print Friendly, PDF & Email

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে একাত্তরে যুদ্ধাপরাধ মামলার রায় পড়া চলাকালে স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে নিজে ছয়বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার কথা বলেছেন বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের (সাকা) চৌধুরী।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সাকা চৌধুরীর বিরুদ্ধে ১৭২ পৃষ্ঠার রায়ের সংক্ষিপ্তসার পড়া শুরু হয়।

এক পর্যায়ে বিচারপতি আনোয়ারুল হক বলেন, সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী পাঁচবার এমপি নির্বাচিত হয়েছেন।

এ সময় সাদা পায়জামা-পাঞ্জাবি পরিহিত সাকা কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে যান। চিৎকার করে বলে ওঠেন- “ফাইভ টাইমস?”

এরপর তিনি বিচারককে উদ্দেশ্য করে বলেন, “সিক্স টাইমস”

এর আগে সকাল ১০টায় একটি প্রিজন ভ্যানে করে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ট্রাইব্যুনালে নিয়ে আসা হয় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদেরকে।

একাত্তরে হত্যা, গণহত্যা, অপহরণ, নির্যাতন, ধর্মান্তরে বাধ্য করার মতো ২৩টি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে তার বিচার হচ্ছে।

মুসলিম লীগ নেতা ফজলুল কাদের চৌধুরীর বড় ছেলে সালাউদ্দিন কাদেরও প্রথমে বাবার দল থেকে সাংসদ নির্বাচিত হন। পরে জাতীয় পার্টি ও এনডিপি হয়ে বিএনপিতে যোগ দেন তিনি।

সর্বপ্রথম ১৯৭৯ সালে মুসলিম লীগ থেকে রাউজানের সাংসদ নির্বাচিত হন তিনি। সামরিক শাসক হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের সময়ে তিনি জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন।

১৯৮৬ সালে জাতীয় পার্টির টিকেটে নির্বাচন করে নিজের এলাকা রাউজান থেকে সাংসদ নির্বাচিত হন। পরে দল থেকে বহিষ্কৃত হন। এরশাদ সরকারের পতনের পর ১৯৯১ সালে তিনি নির্বাচন করে রাউজানের এমপি হন তিনি।

এর কিছুদিন পর এনডিপি বিএনপির সঙ্গে একীভূত হয়ে যায়। ১৯৯৬ সালে বিএনপির মনোনয়নে সাংসদ নির্বাচিত হন সালাউদ্দিন। পরের নির্বাচনে ২০০১ সালে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া থেকে সাংসদ নির্বাচিত হন তিনি।

সর্বশেষ ২০০৮ সালের র্নিবাচনে রাঙ্গুনিয়া ও ফটিকছড়ি থেকে নির্বাচন করেন সাকা। রাঙ্গুনিয়াতে হেরে গেলেও ফটিকছড়ি, অর্থাৎ চট্টগ্রাম-২ আসন থেকে বিএনপির সাংসদ নির্বাচিত হন তিনি।

মাঝে ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে সাংসদ হলেও ওই সরকার স্থায়ী না হওয়ায় তা সাধারণত হিসাবের মধ্যে আনা হয় না।

শেয়ার করুন