‘জননেত্রীর’ আগমনে জনদুর্ভোগ

0
62
Print Friendly, PDF & Email

রাজধানীর মহাখালীতে ৪৫ মিনিট ধরে আটকে আছে বাসটি।  ভিড়ের বাসে ঠায় দাঁড়িয়ে আছেন ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম। রাজধানীর বনানী থেকে বাসটিতে উঠেছেন তিনি। গন্তব্য বারডেম হাসপাতাল। সেখানে তাঁর এক নিকটাত্মীয়ের অস্ত্রোপচার চলছে। কিন্তু তিনি আটকে আছেন মহাখালীতেই। উদ্বেগ-উত্কণ্ঠায় বাসের ভিড়ে ঘামতে ঘামতে নজরুল ইসলাম একপর্যায়ে এত যানজটের কারণ জানতে চান পাশের যাত্রীদের কাছে। জানতে পারেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ নিউইয়র্ক থেকে দেশে ফিরেছেন। তাই বিকেল পাঁচটার পর জাহাঙ্গীর গেট থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও ফার্মগেট পর্যন্ত রাস্তা বন্ধ। জানতে পেরে বাস থেকে নেমে হেঁটেই হাসপাতালের দিকে রওনা দেন তিনি। নজরুল একা নন। তীব্র যানজট দেখে অনেকেই মহাখালী থেকে হাঁটছিলেন নিজ নিজ গন্তব্যের দিকে। প্রত্যেকের চোখেমুখে একরাশ বিরক্তি।
ক্ষুব্ধ নজরুল প্রথম আলো ডটকমকে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর আজকের আগমনে মানুষের যে দুর্ভোগ হয়েছে, তাতে ওনার পাঁচ লাখ ভোট কমবে।’
কর্তব্যরত একজন পুলিশ কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রথম আলো ডটকমকে বলেন, ‘আমাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে জাহাঙ্গীর গেট-প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়-ফার্মগেট পর্যন্ত রাস্তা বন্ধ করে দিতে। তাই নির্দেশমতো বিকেল পাঁচটার পর এই রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।’ প্রধানমন্ত্রী সাড়ে পাঁচটায় বিমানবন্দরে নামলেও পাঁচটায় কেন রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হলো, এমন প্রশ্নের কোনো উত্তর দেননি ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

রাজধানীর শাহবাগ-ফার্মগেট-বিজয় সরণি সড়কে যানজট ছিল সবচেয়ে বেশি। কারণ বিজয় সরণি-জাহাঙ্গীর গেট এলাকার রাস্তার দুই ধারে ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, জাতীয় শ্রমিক লীগের বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মী প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে অবস্থান নেন। ওই সড়কে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের উপচে পড়া ভিড় থাকায় যানজট ছড়িয়ে পড়ে মিরপুর-গাবতলী, মহাখালী-মগবাজার, মহাখালী-গুলশান এলাকায়। এসব রাস্তায় ঘণ্টার ঘণ্টা থেমে ছিল গণপরিবহন। আর থেমে থাকা গাড়িতে ক্লান্ত লোকজন দাঁড়িয়ে ছিলেন অসহায়ভাবে।

 

বিকেল চারটার দিকে গুলিস্তান-আবদুল্লাহপুরগামী ৩ নম্বর বাসে ওঠেন বাবর আহমেদ। সন্ধ্যা ছয়টায় তিনি ফার্মগেটে পৌঁছান। প্রথম আলো ডটকমকে তিনি বলেন, ‘ভিআইপি এলে অবশ্যই তাঁর হেলিকপ্টার ব্যবহার করা উচিত। ভিআইপির নিরাপত্তার অজুহাতে এভাবে রাস্তা বন্ধ করা ঠিক নয়।’

 

বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী শিরিন আখতার প্রথম আলো ডটকমকে বলেন, ‘আমার বাসায় ছোট্ট একটা বাচ্চা আছে। মহাখালী যাব বলে বিকেল চারটায় পল্টন থেকে বাসে উঠেছি। অথচ বাস এগোচ্ছে শামুকের গতিতে।’

 

বাসটির চালক আনিসুর রহমান বলেন, ‘ভাই, যানজট কমানোর একটাই উপায়, সেইটা হলো ভিআইপিদের হেলিকপ্টারে কইর্যা যাইতে হবে।’

 

রাজধানীর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের শিক্ষার্থী জহিরুল ইসলাম প্রথম আলো ডটকমকে বলেন, ‘খিলক্ষেতে যাব। দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থেকে একটি বাস পেয়েছি। কিন্তু বাসটি একটুও এগোচ্ছে না। কাল পরীক্ষা। কী যে করি!’

 

দারিদ্র্য দূরীকরণে অনন্যসাধারণ অবদানের জন্য সম্মানজনক ‘সাউথ সাউথ’ পুরস্কার লাভ করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে  হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আজ গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়। বিশিষ্ট নাগরিকেরা বিকেলে বিমানবন্দরের ভিভিআইপি লাউঞ্জে উপস্থিত থেকে প্রধানমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

শেয়ার করুন