রামপাল প্রকল্পে বিএনপি-জামায়াত-জাপার ‘না’

0
39
Print Friendly, PDF & Email

রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্পের বিরুদ্ধে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরেছে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি, তাদের জোটসঙ্গী জামায়াত এবং ক্ষমতাসীন মহাজোট সরকারের শরিক জাতীয় পার্টি।
আজ রোববার খুলনার জনসভায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র হতে দেবেন না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তাঁর বক্তব্যের পরপরই বিবৃতি দিয়ে এ প্রকল্প বাতিলের দাবি জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ এবং জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল রফিকুল ইসলাম খান।
আজ বিকেলে খুলনায় খালেদা জিয়া বলেন, রামপালে বিদুৎকেন্দ্র করার চেষ্টা চলছে। সেখানে বিদ্যুৎকেন্দ্র হলে সুন্দরবন ধ্বংস হয়ে যাবে। খুলনা অঞ্চলের মানুষ বসবাস করতে পারবে না। সেজন্য রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র করতে দেওয়া হবে না। তিনি বলেন, রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের চেষ্টার প্রতিবাদে তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি লংমার্চ করেছে। তিনি বলেন, ‘আমরা তেল-গ্যাস কমিটির পাশে আছি। আপনাদের যা দরকার লাগবে আমাদের বলবেন। দেশের স্বার্থে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে প্রস্তুত আছি।’

খালেদা জিয়ার বক্তব্যের পরপর গণমাধ্যমে বিবৃতি পাঠায় জাতীয় পার্টি ও জামায়াতে ইসলামী। সন্ধ্যা পৌনে ছয়টার দিকে ই-মেইলে আলাদাভাবে ওই দুটি দলের বিবৃতি আসে।

এরশাদের বিবৃতি: রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে তা বাতিলের দাবি জানান এরশাদ। বিবৃতিতে এরশাদ উল্লেখ করেন, ‘বাংলাদেশের গর্ব প্রকৃতির বিশাল অবদান সুন্দরবনকে সুরক্ষার কথা চিন্তা না করে বর্তমান সরকার বাগেরহাটের রামপালে ১৩২০ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এটা সুন্দরবনকে ধ্বংস করার একটি আত্মঘাতী প্রকল্প। গোটা দেশের মানুষ সরকারের এই অদূরদর্শী সিদ্ধান্তের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে।’
এরশাদ বলেন, কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের জন্য বাংলাদেশে অনেক উপযুক্ত জায়গা আছে। কিন্তু সেটা সুন্দরবনের কাছে কেন স্থাপন করতে হবে?
দেশের মানুষ যা চায় না, সে ধরনের কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকার জন্য এরশাদ সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

জামায়াতের বিবৃতি: রামপাল তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের জন্য ভারতের সঙ্গে সম্পাদিত চুক্তি অবিলম্বে বাতিল ঘোষণা করে এ পরিকল্পনা পরিত্যাগ করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল রফিকুল ইসলাম খান।
রফিকুল ইসলাম বলেন, এ বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করে সুন্দরবন ধ্বংস করা হলে বাংলাদেশের অপূরণীয় ক্ষতি হবে। মহাজোট সরকার ভারতের সঙ্গে চুক্তি করে রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করে মূলত বাংলাদেশকেই ধ্বংস করার চক্রান্ত করছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। এ প্রকল্প বাতিলের জন্য তিনি সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

শেয়ার করুন