সরকার সমঝোতায় না বসলে রাজপথে ফয়সালা: বিএনপি

0
37
Print Friendly, PDF & Email

জাতীয় সংসদের চলতি অধিবেশনে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা সংবিধানে পুনস্থাপন বিল পাশ না করা হলে এবং আগামী দশম জাতীয় নিবার্চন সমঝোতার ভিত্তিতে না হলে রাজপথে আন্দোলনের মাধ্যমে এর ফয়সালা হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, বর্তমান সরকার ও বিরোধী দলের মধ্যে চলমান রাজনৈতিক সংকট নিরসন এবং আগামী দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে শেষ করতে দেশী-বিদেশী প্রচেষ্টা চললেও সংকট সমাধানের কোনো লক্ষণ আপাতত দেখা যাচ্ছে না। ফলে দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি ক্রমশ অনিবার্য সংঘাতের দিকে যাচ্ছে।
দেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের মুখোমুখি অবস্থানের কারণে সমস্যা প্রকট হয়ে উঠেছে। তাদের দাবি, পর্দার অন্তরালে সমঝোতার জন্য নানা উদ্যোগ নেয়া হলেও তার কোনো সুফল আপাতদৃষ্টে পরিলক্ষিত হচ্ছে না।

বিশিষ্ট রাজৈনতিক বিশ্লেষক ও সিনিয়র সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীর বলেন, সমঝোতার ব্যাপারে পর্দার অন্তরালে কিছু আলোচনা চলছে শোনা যাচ্ছে কিন্তু তা কতটা সফল হবে তা এখনই বলা সম্ভব নয়। বর্তমান সরকার চলমান রাজনৈতিক সংকট নিরসনে আসলে কতটা আন্তরিক এবং নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার বিষয়ে কি সিদ্ধান্ত নেবে এটা নির্ভর করছে সরকারের মনোভাবের ওপর।

তবে তাদের উচিত জনগণের দাবি অনুযায়ী নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা ফিরিয়ে এনে দেশকে অনিবার্য রাজনৈতিক সংঘাতের হাত থেকে রক্ষা করা।

চলমান রাজৈনতিক সংকট নিরসনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার বিরোধী দলের সাথে সমঝোতায় না বসলে রাজপথে ফয়সালা করা হবে এমন আভাস দিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, সরকার নিজেই তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করে দেশে একটা রাজৈনতিক সংকট সৃষ্টি করেছে। আর এ কারণে এর সমাধানও সরকারকেই করতে হবে।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও দপ্তর সম্পাদক রুহুল কবির রিজভী বলেন, বিএনপি সব সময় শান্তিপূর্ন আলোচনার পক্ষে। নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিষয়ে যেকোনো স্থানে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত আছি আমরা।

তিনি বলেন, কেবলমাত্র নির্দলীয় সরকারের ধারণা মেনে নিলেই আমরা আলোচনায় বসবো। আর বর্তমান সরকার যদি তা না মানে কিংবা সমঝোতার পরির্বতে সংঘাতের দিকে যায় তাহলে গণঅভ্যুত্থানের মাধ্যমে রাজপথে এর ফয়সালা হবে।

জাতীয় সংসদের বিএনপি দলীয় এমপি শাম্মী আক্তার বলেন, নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আমরা আলোচনা ও আন্দোলন এক সঙ্গে চালিয়ে যাবো যতক্ষণ পর্যন্ত সরকার এ দাবি মেনে না নেবে। অবিলম্বে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ব্যবস্থা পুনর্বহালের জোর দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, দাবি না মানলে জনগণকে সাথে নিয়ে সরকার পতন আন্দোলন নিশ্চিত করা হবে।

সবকিছু মিলে আগামী দশম জাতীয় নিবার্চন যাতে সমঝোতার মাধ্যমে করা যায় সে লক্ষ্যে বিভিন্ন দেশের কূটনৈতিক ও দাতাদেশের প্রতিনিধিরা কাজ করছে। তারা একটি সুষ্ঠু অবাধ এবং সবদলের অংশগ্রহণে নির্বাচন দেখতে চায়।

শেয়ার করুন