ভুলে যাওয়ার নেপথ্যে………………..

0
63
Print Friendly, PDF & Email

ভুলে যাওয়ার অভ্যাসটি একেবারেই নেই এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া অসম্ভবই বটে। সাধারণত প্রতিদিনই আমরা কমপক্ষে চারটি বিষয় ভুলে বসে থাকি। বাসা থেকে বের হতে গিয়ে মানিব্যাগ বা মোবাইল ফেলে যাওয়া কিংবা মাংসের বরফ ছাড়িয়ে রাখতে ভুলে যাওয়ার মত আরো অনেক ব্যাপারই ভুলে যাই আমরা। আবার অনেক ক্ষেত্রে কারো সাথে কথা বলতে গিয়ে অথবা ফোন দিতে গিয়ে তার নামটাই মনে করতে পারি না কিছুতে। গবেষকরা প্রায় ২০০০ হাজার মানুষের উপরে গবেষনা করে ৫০টি বিষয় বের করেছেন যেগুলো প্রায় সব মানুষ সচরাচর ভুলে গিয়ে থাকে। এগুলোর মধ্যে শীর্ষ দুটি হলো কোনো রুমে গিয়ে ভুলে যাওয়া কেন সেখানে গিয়েছেন এবং চাবি কোথায় রেখেছেন মন করতে না পারা। গবেষনায় দেখা গেছে যে ছেলেরা সাধাণরত বিবাহ বার্ষিকী ও স্ত্রীর জন্মদিন ভুলে যায়। তাছাড়া প্রতি বিশ জনের মধ্যে একজন ভুলো মনের কারণে কারো অন্তিম সৎকারে অংশগ্রহণ করতে পারে না। মেয়েদের ক্ষেত্রে দেখা গেছে প্রিয় কোন বস্তু হারালে বা খুঁজে না পেলে তাঁরা বেশ বিষন্ন হয়ে পরে। ঁহফবভরহবফ আরো মজার একটা ব্যাপার হচ্ছে প্রতি চার জনের মধ্যে একজন নারী কোনো কিছু ভুলে গেলে সেটা স্বীকার করতে চায় না। তাঁরা মনে করে যে ভুলে যাওয়ার ব্যাপারটি প্রকাশ পেলে তাঁরা বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়বে। তাই তারা ভুলে যাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে ও প্রয়োজনে মিথ্যাও বলে। ভুলে গেলে বিব্রতবোধ করার আতঙ্কেই হয়তো নারীরা একটি সম্পর্কের খুটিনাটি বিষয়গুলো মনে রাখার চেষ্টা করে থাকে। পুরুষ সঙ্গীটির চাইতে নারী সঙ্গীটি সব কিছু বেশি মনে রাখার চেষ্টা করার প্রবণতা দেখা যায় হয়তো এই কারণেই। সাধারণত বেশি সময় ধরে কাজ করা, ব্যস্ত জীবন-যাপন ও আর্থিক নিরাপত্তার অভাবের কারণেই মানুষের মধ্যে ভুলে যাওয়ার প্রবণতাটা বেড়ে যায়। একটা ক্লান্তিকর ব্যস্ত দিনে, অনেক ভালো স্মৃতিশক্তি সম্পন্ন ব্যাক্তিও ছোট খাটো অনেক বিষয় ভুলে যেতে পারেন। তাই ভুলে যাওয়ার সমস্যা দূর করতে সব কিছু ডায়রীতে লিখে রাখুন কিংবা মোবাইলে রিমান্ডার দিয়ে রাখুন। তাহলে গুরুত্বপূর্ণ কোনো বিষয় ভুলে গিয়ে বিপদে পরতে হবে না।

শেয়ার করুন