পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ, অবরোধ

0
75
Print Friendly, PDF & Email

ন্যূনতম মজুরি ৮ হাজার টাকায় উন্নীত করার দাবিতে চতুর্থ দিনের মতো পোশাকশ্রমিকরা বিক্ষোভ-অবরোধ করেছে।

মঙ্গলবার সকাল থেকে চলমান আন্দোলনের অংশ হিসেবে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা, ঢাকার কুড়িল বিশ্বরোড, আশুলিয়ার জিরাবো ও গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার শিল্পাঞ্চলের বিভিন্ন গার্মেন্টস কারখানার হাজার হাজার ক্ষুব্ধ শ্রমিক রাস্তায় নেমে এসেছে। এ সময় তারা সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেছে।

এদিকে, শ্রমিক বিক্ষোভের মুখে এসব এলাকার পোশাক কারখানায় ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

কুড়িল: সকাল ৯টার দিকে কয়েকটি পোশাক কারখানার কয়েক হাজার শ্রমিক কুড়িল বিশ্বরোড অবরোধ করেন। এতে বিমানবন্দর সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে।

ইউরো জোন, গাজী টাওয়ার, মোহাম্মদীয়া, ক্ল্যাসিক, কেনিয়া গার্মেন্টসের প্রায় চার হাজার শ্রমিক এ অবরোধে অংশ নিয়েছেন।

আন্দোলনকারীরা ব্যারিকেড দিয়ে কুড়িল ফ্লাইওভারের ওপরে ও নিচে অবরোধ তৈরি করেছেন। শ্রমিকেরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন।

পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলেও দাবি আদায় না করা পর্যন্ত অবরোধ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

নারায়ণগঞ্জ: সকাল ১০টার দিকে হাজার হাজার শ্রমিক ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে নেমে এসে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে। পরিস্থিতির আরও অবনতির আশঙ্কায় ফতুল্লা শিল্পাঞ্চলের বেশিরভাগ গার্মেন্টসে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

আশুলিয়া: আশুলিয়ার জিরাবো এলাকায় সকালে শ্রমিক অসন্তোষ দেখা দেয়। সেখানে পুলিশের সঙ্গে পোশাকশ্রমিকদের সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়েছে।

পুলিশ, শ্রমিক ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল আটটার দিকে জিরাবো বিশমাইল সড়কের উভয় পাশে মাসকাট ও রেডিয়েনসসহ অন্তত ১০টি পোশাক কারাখানার শ্রমিকেরা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের সামনে জড়ো হন। এরপর তারা সর্বনিম্ন মজুরি ৮ হাজার টাকায় উন্নীত করার দাবিতে কারখানার ভেতরে না ঢুকে বিক্ষোভ করতে থাকেন।

একপর্যায়ে শ্রমিকেরা অন্যান্য কারখানায় ইটপাটকেল ছোড়েন। সড়ক অবরোধের চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের ধাওয়া করে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে শ্রমিকদের ঘণ্টাব্যাপী দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়।

শিল্প পুলিশ আশুলিয়া জোনের পরিদর্শক আবদুস সাত্তার বলেন, সকাল ১০টা থেকে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে থাকলেও শ্রমিকেরা বিভিন্ন অলিগলিতে অবস্থান নিয়েছেন। এ এলাকাসহ পুরো শিল্প এলাকায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

কালিয়াকৈর: ন্যূনতম বেতন বাড়ানোর দাবিতে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রা পল্লী বিদ্যুৎ এলাকায় সকাল সাড়ে আটটার দিকে কয়েকটি কারখানার শ্রমিকেরা কাজে না গিয়ে কর্মবিরতি ও বিক্ষোভ শুরু করেন। একপর্যায়ে তারা ওই এলাকায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে গাছের গুঁড়ি ফেলে অবরোধ সৃষ্টি করেন।

কালিয়াকৈর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আহসানউল্লাহ জানান, সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে শ্রমিকদের সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে পুলিশ। এ সময় শ্রমিকেরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন। পোশাকশ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ লাঠিপেটা ও কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে। এতে  অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

শেয়ার করুন