লালমোহনে ছাত্রলীগ সভাপতির হাতে লাঞ্ছিত পৌরসভার কর্মকর্তারা

0
98
Print Friendly, PDF & Email

লালমোহন পৌরসভার যানবাহনের ট্রেড লাইসেন্স আদায় করতে গিয়ে পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি ও তার বাহিনীর হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন পৌরসভার কর্মকর্তারা। গতকাল সকালে থানার মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে পৌরসভার পক্ষ থেকে ৩ দিনের আলটিমেটার দেয়া হয়েছে। তা না হলে পৌরসভার সব উন্নয়নমূলক ও সেবা খাত বন্ধ করে দেয়া হবে বলে হুমকি দেয়া হয়।
পৌর মেয়র এমদাদুল ইসলাম তুহিন জানান, লালমোহন পৌরসভা ইউজিএফ-২ প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত। প্রকল্পের শর্তানুযায়ী প্রতি বছর অন্তর অন্তর সব ট্যাক্স ও ট্রেড লাইসেন্স উত্তোলন করার নির্দেশনা রয়েছে। সে সুবাধে গতকাল রোববার থানার মোড় থেকে কুঞ্জেরহাট রুটের সব ধরনের যানবাহনের ট্রেড লাইসেন্স নবায়নের জন্য পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা থানার মোড় যান।
যানবাহনের মালিকরা এক সপ্তাহ সময় চাইলে পৌরসভার পক্ষ থেকে সময় দেয়া হয়। কিন্তু পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি ফরহাদ হোসেন মেহের ও বিল্লাল নামে কিছু চাঁদাবাজ সেখানে উপস্থিত হয়ে কোনো ধরনের ট্রেড লাইসেন্সের জন্য টাকা দেয়া হবে না বলে পৌর কর্মকর্তাদের ওপর চড়াও হয়।
এ সময় তারা কর্মকর্তাদের সঙ্গে অশোভন আচরণ করে তাদের লাঞ্ছিত করে।
তারা ওইসব যানবাহন থেকে নিয়মিত চাঁদা আদায় করে আসছে। এ কারণে হঠাত্ করে তারা পৌরসভার ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন করতে বাধা প্রদান করে। এ ঘটনার প্রতিবাদে পৌর মেয়র, কাউন্সিলর ও সব কর্মকর্তা-কর্মচারী পৌর ভবনে প্রতিবাদ সভা করেন। ওই সভায় তারা ক্যাডারদের শাস্তির দাবি জানিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ৩ দিনের আলটিমেটাম দেন। বিচার না পেলে পৌরসভার সব সেবা খাত ও উন্নয়নমূলক কাজ বন্ধ করে দেবেন বলে জানান।

শেয়ার করুন