সবার জন্য শিক্ষা নিশ্চিতে প্রতিবেদন প্রণয়ন হচ্ছে

0
81
Print Friendly, PDF & Email

আগামী ২০১৫ সালের মধ্যে দেশের সবার জন্য শিক্ষা (ইএফএ) নিশ্চিত করার টার্গেট নিয়ে কাজ করছে সরকার।

এ লক্ষ্যে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে একটি প্রতিবেদন প্রণয়ন করা হবে। ইউনেস্কো’র ফরমেট ও আউট লাইন অনুযায়ী তা আগামী জুনে প্রকাশ করা হবে।

ইএফএ কর্মসূচি পর্যালোচনা ও প্রতিবেদন প্রস্তুতির জন্য ইউনেস্কো’র গাইড  লাইন অনুযায়ী জাতীয় কো-অর্ডিনেশন কমিটি গঠন করেছে সরকার। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সচিবের নেতৃত্বে ৫১ সদস্যের এ কমিটিতে সরকারি- বেসরকারি ও উন্নয়ন সহযোগী সংস্থার প্রতিনিধিরা রয়েছেন।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব কাজী আখতার হোসেন এ বিষয়ে বলেন, ২০১৫ সালের মধ্যে ‘সবার জন্য শিক্ষা’ নিশ্চিত করতে কাজ করছে সরকার। এ কর্মসূচি সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়ন ও সফল করতে জাতীয় কমিটি কাজ করবে। এই কমিটি একটি উন্নতমানের প্রতিবেদন তৈরি করবে বলে আমি মনে করি।

জানা গেছে, সবার জন্য শিক্ষা কর্মসূচিতে ইউনেস্কোর যেসব সদস্য রাস্ট্র, সম্মতি জানিয়েছিল, তাদের জন্য ২০১৫ সালকে লক্ষ্য অর্জনের সাল হিসেবে ইউনেস্কো নির্ধারণ করেছে।

এ জন্য ইউনেস্কো’র সব সদস্য রাস্ট্র হতে ইএফএ’র লক্ষ্য অর্জনের বিষয়ে জাতীয় পর্যায়ে একটি প্রতিবেদন প্রণয়নের অনুরোধ জানানো হয়েছে।

এর ফলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত কমিটি গঠন করে। কমিটির কার্যপরিধিতে বলা হয়, কমিটি ইউনেস্কো’র গাউড লাইন অনুসরণ করে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করবে। পাশাপাশি কর্মসূচি বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় সংখ্যক টাস্কফোর্স গঠনেএবং এক বা একাধিক সদস্যও কো-অপ্ট করতে পারবে। কমিটি আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন চূড়ান্ত করবে। প্রতিবেদন অনুযায়ী বাজেট প্রণয়ন করে বাজেটে উল্লেখিত অর্থের উৎস অনুসন্ধান করবে কমিটি।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দুইজন অতিরিক্ত সচিব, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, ধর্ম মন্ত্রণালয়, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয়, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার বিভাগ, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের (যুগ্মসচিব পদমর্যাদার) একজন করে প্রতিনিধি।

এ ছাড়া প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো, জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমি, নায়েম, ব্যানবেইস, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো ও মাউশি’র মহাপরিচালকদের কমিটিতে সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে।

মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান, কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের একজন পরিচালক, এনএসডিসি’র পরিচালক, বিএনসিইউ’র সচিব, ঢাকা, রাজশাহী ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের আইইআর’র প্রতিনিধি, ক্যাম্পের নির্বাহী পরিচালক, আহসানিয়া মিশনের নির্বাহী পরিচালক, প্ল্যান বাংলাদেশ, সেভ দ্যা চিলড্রেন, ইউনেস্কো, ইউনিসেফ, অ্যাকশন এইড, বিশ্বব্যাংক, এডিবি, এসডিসি, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, জাইকা, ডিএফআইডি, এস এইড, বিইএন, এফআরই, এডুকেশন ওয়াচ, বিআইডিএস, পিপিআরসি, এনএফওডব্লিও ডি, স্টেপস এবং এমিলি ফোরামের প্রতিনিধিরা এ কমিটির সদস্য।

কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (উন্নয়ন)।

শেয়ার করুন