শামীম ওসমানের অনুগত প্যানেলের পরাজয়

0
59
Print Friendly, PDF & Email

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ-সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ প্যানেলের পরাজয় হয়েছে। ১৭টি পদের মধ্যে তারা মাত্র ছয়টি পদ পেয়েছে। সাধারণ সম্পাদকসহ ১০টি পদে জয়ী হয়েছেন বিএনপি-সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ প্যানেলের আইনজীবীরা। সভাপতি পদে জয়ী হয়েছেন বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন খান।
সভাপতি পদে সাখাওয়াতসহ জেলা বিএনপির দুই নেতা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা সত্ত্বেও জিততে পারেননি জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আনিসুর রহমান ওরফে দিপু। তিনি নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের বিতর্কিত নেতা শামীম ওসমানের অনুগত হিসেবে পরিচিত।
বৃহস্পতিবার জেলা আইনজীবী সমিতি ভবনে ৮৯০ ভোটারের মধ্যে ৮৫৬ জন ভোট দেন।
জানতে চাইলে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে পরাজয়ের দায় আওয়ামী লীগ নেবে না। কারণ আওয়ামী লীগের কোনো পর্যায়ের বৈঠক এমনকি দলীয় সাংসদ ও নেতাদের সঙ্গে আলোচনা ছাড়াই শামীম ওসমান রাইফেলস ক্লাবে তাঁর অনুগতদের নিয়ে বসে এই প্যানেল তৈরি করেছেন।
জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মো. শহীদুল্লাহ বলেন, একাধিক যোগ্য প্রার্থী থাকা সত্ত্বেও শামীম ওসমান আনিসুরকে সভাপতি পদে প্রার্থী করেছেন। তাঁর বিরুদ্ধে নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকা এবং তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী হত্যা মামলার আসামিদের পক্ষাবলম্বন করার অভিযোগ রয়েছে।
তবে আওয়ামী লীগের দুই নেতার সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করেছেন সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের পরাজিত সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী মাসুদুর রউফ। তিনি অভিযোগ করেন, বিএনপি-জামায়াত গোষ্ঠী টাকার বিনিময়ে ভোট কিনেছে।
অভিযোগ অস্বীকার করে নবনির্বাচিত সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। আইনজীবীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে তাঁদের রায় দিয়েছেন।
আনিসুর রহমান বলেন, ‘নির্বাচনের ফলাফল মেনে নিয়েছি। আইনজীবীরা যাঁকে যোগ্য মনে করেছেন, তাঁকেই ভোট দিয়েছেন।’
যাঁরা জয়ী হলেন: বৃহস্পতিবার রাত দুইটার দিকে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান আকতার হোসেন প্রাথমিক ফলাফল ঘোষণা করেন। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ প্যানেলের জাকির হোসেন সাধারণ সম্পাদক, সরকার হুমায়ন কবির জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি, সৈয়দ মশিউর রহমান সহসভাপতি, রফিকুল ইসলাম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, কাজী আবদুল গাফফার কোষাধ্যক্ষ, আবদুছ ছামাদ মোল্লা আইন ও মানবাধিকার সম্পাদক এবং জিল্লুর রহমান সমাজসেবা সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। ওই প্যানেলের আনোয়ারুল আলম, মো. জুবের আলম ও মো. নজরুল ইসলাম কার্যকরী সদস্য পদে জয়ী হয়েছেন।
সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের মোহাম্মদ আল মামুন ভূঁইয়া সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক, জি এম ফেরদৌস আপ্যায়ন, দেলোয়ারা বেগম গ্রন্থাগার ও মো. কামাল হোসেন ক্রীড়া সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন। ওই প্যানেলের মোহাম্মদ এমদাদ হোসেন ও মোহাম্মদ আসাদুর রহমান সদস্য পদে জয়ী হয়েছেন।
গত বছরের নির্বাচনে বিএনপি-সমর্থিত আইনজীবীরা সভাপতিসহ ১১ পদে জয়ী হয়েছিলেন।

শেয়ার করুন