আওয়ামী লীগ মানে দেশের টাকা পাচার করা: খালেদা জিয়া

0
42
Print Friendly, PDF & Email

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেছেন, “নির্দলীয় সরকার পদ্ধতি বহাল করে নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণের পরিবেশ তৈরি করুন।”

আজ রোববার বিকেলে রংপুর জেলা স্কুল মাঠে আয়োজিত ১৮ দলের সমাবেশে খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন।

তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ করে বলেন, “আপনি আগামী ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত সংসদ বহাল রেখেছেন। কাজেই এখনও সময় আছে নির্দলীয় সরকারের বিল আনুন।”

খালেদা জিয়া বলেন, ৭৪ সালের দুর্ভিক্ষের কথা রংপুরের মানুষ ভোলে নাই। “আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় আসে তখন জিনিসপত্রের দাম বাড়ে। আওয়ামী লীগের সময় কুকুর ও মানুষ ডাস্টবিনের খাবার কাড়াকাড়ি করে খায়। আওয়ামী লীগ মানে লুটপাট, আওয়ামী লীগ মানে দুর্ভিক্ষ, আওয়ামী লীগ মানে দেশের টাকা পাচার করা।”

খালেদা বলেন, ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য সরকার দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করতে চাইছে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলেই দেশে দ্রব্যমূল্য বাড়ে, দেশে দুর্ভিক্ষ শুরু হয় বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

খালেদা জিয়া বলেন, আওয়ামী লীগ ভোট চাচ্ছে, তাদের ভোট দিলে নাকি উন্নয়নের জোয়ার সৃষ্টি হবে। তারা উন্নয়ন করবে না, তারা ক্ষমতায় এলে জুলুম বাড়বে, জিনিসপত্রের দাম বাড়বে।

বেগম জিয়া বলেন, যদি বিচারপতি কেএম হাসানের অধীনে নির্বাচন সুষ্ঠু না হয় তাহলে তার (শেখ হাসিনা) অধীনে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কেমন করে? আমরা দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাব না।

তিনি বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত নির্দলীয় সরকার বিল পাশ না করা হবে আমরা কোনো আলোচনায় যাব না।

খালেদা বলেন, ২২ জানুয়ারি বিচারপতি কেএম হাসানের অধীনে নির্বাচনের কথা ছিল। কিন্তু আওয়ামী লীগ তার অধীনে নির্বাচনে যায়নি।
যদি কেএম হাসানের অধীনে নির্বাচন সুষ্ঠু না হয় তাহলে তার (শেখ হাসিনা) অধীনে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কেমন করে?
আমরা দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাব না। আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রেখে কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবো না। আপনারা নাকি অনেক কাজ করেছেন। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিয়ে তা প্রমাণ করুন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ মানেই দুর্ভিক্ষ, মা-বোনদের ওপর নির্যাতন। এদেশের মানুষ আর তাদের ক্ষমতায় দেখতে চায় না।

খালেদার বক্তৃতা শুরুর পরপরই বৃষ্টি শুরু হলে এটাকে তিনি ‘আল্লাহর রহমত’ হিসেবে আখ্যায়িত করেন। তবে বৃষ্টিতেও মানুষ জনসভাস্থল ত্যাগ করেনি। বৃষ্টিতে ভিজেই লাখো নেতাকর্মী জোটনেত্রীর ভাষণ শুনেন।

শেয়ার করুন