হয় বিয়ে, না হয় আত্নহত্যা৷ নওগাঁয় প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকার অনশন ধর্মঘট

0
40
Print Friendly, PDF & Email

মোফাজ্জল হোসেন, নওগাঁ প্রতিনিধিঃ
নওগাঁয় দীর্ঘ দিন প্রেমের সম্পর্কের পর বিয়ে করতে রাজী না হওয়ায় প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকা নাসরিন (২৩) অনশন শুরম্ন করেছে৷ শুক্রবার রাত ১১ টার পর থেকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে প্রতারক প্রেমিক গুলশান সরদার (২৮) তার প্রেমিককে বাড়িতে নিয়ে আসলে ভোর রাতে সে বিয়ে না করে সুকৌশলে বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়৷ ঘটনাটি ঘটেছে নওগাঁ সদর উপজেলার বোয়ালিয়া মাদাস্রাপাড়া গ্রামে৷
এলাকাবাসির সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের মৃত কছির উদ্দিন সরদারের ছোট ছেলে গুলশান সরদার আপন মামাতো বোন প্রায় সাড়ে চার বছর ধরে একই গ্রামের মৃত আনছার আলীর ছোট মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক করে আসছিল৷ প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠলে মেয়ে বিয়ের চাপ দিতে থাকে৷ কিন্তু ছেলে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়৷ ফলে মেয়ের অনত্র বিয়ে হয় এবং সুখে সংসার করছিল৷ সেখানে একটি কন্যা সনত্মানের জন্ম হয়৷ তারপরও গুলশান তাকে বিয়ের প্রসত্মাব দিতে থাকে৷ মোবাইল ফোনে বার বার তাকে স্বামীর ঘর ছেড়ে চলে আসতে বলে৷ এ নিয়ে স্বামীর সংসারে অশানত্মি দেখা দিলে নাসরিন বাধ্য হয়ে গুলশান বিয়ে করবে এ আশায় স্বামীর ঘর ছেড়ে চলে আসে৷ ফলে তাদের মধ্যে আবারও প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে৷ প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠলে বিয়ের প্রোলভন দিয়ে মাঝে মধ্যেই সবার অগোচরে গুলশান তার নিজ বাড়িতে নিয়ে আসতো এবং দৈহিক মেলামেশা করতো৷ এরই ধারাবাহিকতায় বিয়ে করবে বলে মেয়েটিকে শেষ বারের মতো প্রলোভন দিয়ে ওই দিন রাতে পুনরায় বাড়িতে নিয়ে আসে৷ রাত যাপনের একপর্যায়ে ছেলের মেঝ ভাই হাসু, সেজো ভাই গোলবাগ, এদের স্ত্রী এবং ভাগ্নী ঝিনুক শনিবার সকাল ১০টার দিকে মেয়েটিকে বেধরক মারপিট শুরম্ন করে দেয়৷ তার আত্নচিত্‍কারে পাশর্্ববর্তী লোকজন এগিয়ে আসলে মেয়েটিকে বাড়ী বাহিরে রেখে তার পালিয়ে যায়৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে সাংবাদিকরা তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে ছেলের বাড়ীর দরজা বন্ধ রাখে এবং কথা বলতে রাজী হয়নি৷
এব্যাপারে মেয়েটি জানান, বিয়ে করবে বলে গুলশান আমাকে মাঝে মধ্যেই রাতে সবার অজানত্মে তার বাড়িতে নিয়ে আসতো৷ কিন্তু বিয়ে করতো না, এক পর্যায়ে তার সাথে আমার সম্পর্কে অবণতি ঘটতে থাকে৷ হঠাত্‍ করে আবার কয়েকদিন থেকে আমাকে প্রলোভন দিতে থাকে, যা হবার তা হয়েছে আজকে আমরা বিয়ে করবো এখন চলো৷ কিন্তু গুলশান আমার সাথে প্রতারনা করে এবং মারপিট করে পালিয়ে যায়৷ আমার এখন একটাই দাবী হয় বিয়ে, না হয় আত্নহত্যা৷ এ ব্যাপারে নওগাঁ সদর মডেল থানায় এ রির্পোট লিখা পর্যনত্ম থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে৷

শেয়ার করুন