গণজাগরণ মঞ্চের কর্মী আরিফ নূরকে কুপিয়ে জখম

0
44
Print Friendly, PDF & Email

গণজাগরণ মঞ্চের সক্রিয় কর্মী আরিফ নূরকে কুপিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। শুক্রবার রাত ১২টার দিকে রূপসী বাংলা হোটেলের সামনে তার ওপর এ হামলা চালানো হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, আরিফ নূর উদীচী শিল্প গোষ্ঠীর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য।

তার সহকর্মী পংকন জানান, রাত ১২টার দিকে শাহবাগ থেকে নূর তার এক বন্ধুর সাথে দেখা করতে পরিবাগে যান। সেখান থেকে বাসায় ফেরার পথে রূপসী বাংলা হোটেলের সামনে একটি প্রাইভেটকারে আসা কয়েকজন সন্ত্রাসী তার গতিরোধ করে। কিছু বুঝার আগেই চাপাতি দিয়ে নুরকে মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে চলে যায়। এতে মাটিতে লুটে পড়েন নূর। তার চিৎকারে লোকজন দৌড়ে এসে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।

মেডিকেল সূত্রে জানা গেছে, আরিফ নূরের মাথায় চারটি আঘাত ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। মাথায় সিটি স্ক্যান করা হয়েছে। বমি হওয়ায় চিকিৎসক তাকে নিবিড় তত্ত্বাবধানে রেখেছেন।

এদিকে খবর পেয়ে তাকে দেখতে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকারসহ বিভিন্ন সংগঠনের লোকজন হাসপাতালে ছুটে যান।

এ সময় ডা. ইমরান বলেন,“ আমাদেরকে হত্যা করার জন্যই বার বার গণজাগরণ মঞ্চের সদস্যদের ওপর সন্ত্রাসী হামলা চালানো হচ্ছে। এ হামলার প্রতিবাদে শনিবার বিকেল ৫টায় গণজাগরণ মঞ্চে মিলিত হবো এবং সন্ধ্যায় মশাল মিছিল বের করবো।”

তিনি বলেন, “হত্যার উদ্দেশ্যেই নূরকে মাথায় আঘাত করা হয়েছে।”

এর আগেও একই জায়গায় গণজাগরণ মঞ্চের কর্মী লাকী আক্তার ও শাম্মী আক্তারকে একইভাবে হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন ইমরান এইচ সরকার।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, “এর আগে গণজাগরণ কর্মী রাজীব, দ্বীপ ও তন্ময়কে একইভাবে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া সিলেট, সাতক্ষীরা ও বিভিন্ন জায়গায় কর্মীদের ওপর যে আঘাত করা হয়েছে তা চাপাতি দিয়েই করা হয়েছে।”

দুর্বত্তদের আঘাতের ধরণ একই রকম বলে মন্তব্য করেন ইমরান এইচ সরকার।

শেয়ার করুন