আজ সাবেক অর্থমন্ত্রী সাইফুর রহমানের ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী

0
70
Print Friendly, PDF & Email

সাবেক অর্থমন্ত্রী ও বিএনপি নেতা এম সাইফুর রহমানের ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০০৯ সালের এই দিনে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি সময় ধরে অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন তিনি। বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য মোট ১২ বার বাজেট উপস্থাপন করেন।

তার মৃত্যুতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সেদিন তাৎক্ষণিক শোক প্রকাশ করেন এবং যাবতীয় কর্মসূচি স্থগিত করে দেন। পেশায় চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট সাইফুর রহমান বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের হাত ধরে রাজনীতিতে আসেন।

চারবার জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। জিয়াউর রহমানের মন্ত্রিসভায় প্রথমে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং পরে অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন সাইফুর। এরপর বিএনপি যতদিন ক্ষমতায় ছিল, সাইফুর রহমানই অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৯১-৯৬ মেয়াদে অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনের সময় তিনি দেশে মূল্য সংযোজন কর (মূসক বা ভ্যাট) চালু করেন।

২০০৯ সালের ৫ সেপ্টেম্বর শনিবার দুপুরে মৌলভীবাজার থেকে ঢাকায় যাওয়ার পথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে দুর্ঘটনায় পড়েন তিনি।

দুর্ঘটনার পরে পুলিশ জানায়, সাইফুর রহমানের গাড়িটি ৫ সেপ্টেম্বর বেলা আড়াইটার দিকে আশুগঞ্জের খড়িয়ালা এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের খাদে পড়ে যায়।

প্রত্যক্ষ্যদর্শীরা জানান, সাইফুর রহমানকে বহনকারী গাড়িটি একটি গরুকে বাঁচাতে গিয়ে রাস্তার পাশের খাদে পড়ে যায়। গাড়িটি প্রায় ৫/৬ ফুট পানিতে তলিয়ে যায়।

তারা জানায়, সাইফুর রহমান সিট বেল্ট পরেছিলেন। তার পেছনে যে গাড়ি ছিলো সে গাড়ি থেকে লোকজন নেমে গাড়ির দরজা ভেঙে এবং সিটবেল্ট কেটে পানির ভেতর থেকে তাকে বের করতে প্রায় ১০ থেকে ১২ মিনিট সময় লেগে যায়।

গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে সঙ্গে সঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বেলা ৩টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ধারণা করা হয়, পানির ভেতর থাকা অবস্থায়ই সাইফুর রহমানের মৃত্যু হয়।

৫ সেপ্টেম্বর শনিবার সাবেক অর্থমন্ত্রীর মৃত্যুর খবর পেয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভিড় জমে যায়। স্থানীয় বিএনপির নেতারা ছাড়াও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগসহ অন্য রাজনৈতিক দলগুলোর নেতারাও হাসপাতালে ছুটে যান।

ঢাকা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া গিয়ে সাইফুর রহমানের ছেলে কায়সার রহমান বিকেল সোয়া ৫টায় লাশ নিয়ে ঢাকার পথে রওনা হন।

সাইফুর রহমানের জন্ম ১৯৩২ সালের মার্চে মৌলভীবাজার সদরের বাহারমর্দন গ্রামে।

সাইফুরের মৃত্যুতে দেশে শোকের ছায়া নেমে আসে। অত্যন্ত সহজ-সরল ভাষা ও অভিব্যক্তিতে কথা বলতেন বলে অনেকের প্রিয় ব্যক্তি ছিলেন তিনি।

বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বাণীতে বর্তমানে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সাইফুর রহমান অনন্য এক ব্যক্তিত্ব ছিলেন।

শেয়ার করুন