হাসিনার নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা

0
72
Print Friendly, PDF & Email

 প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সচিব সভায় বলেছেন, আগামী ২৭ অক্টোবর থেকে পরবর্তী তিন মাস সংসদ বহাল থাকবে। তবে এ সময় কোনো সংসদ অধিবেশন বসবে না। ওই সময় মন্ত্রিসভা থাকলেও কোনো নীতিনির্ধারণী সিদ্ধান্ত হবে না। তাই সেভাবেই সবাইকে কাজ করতে হবে। সচিবরাও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করার জন্য প্রস্তুত রয়েছেন বলে প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন।
গতকাল বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা এ তথ্য জানান। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, সংবিধান অনুযায়ী বর্তমান সংসদের মেয়াদ শেষ হবে আগামী ২৪ জানুয়ারি। নির্বাচন হবে সংসদের মেয়াদের শেষ তিন মাসের মধ্যে। অর্থাত্ আগামী ২৭ অক্টোবর থেকে ২৪ জানুয়ারির মধ্যে। সে অনুযায়ী সরকারের মেয়াদ শেষ হওয়ার ৯০ দিন আগে সংসদ বহাল থাকলেও ওই সময় সংসদ অধিবেশন বসবে না। সেক্ষেত্রে ২৭ অক্টোবরের পর মহাজোট ক্ষমতায় থাকলেও নীতিগত গুরুত্বপূর্ণ কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে না বলেই গতকাল প্রধানমন্ত্রী সচিবদের জানিয়েছেন। সংসদীয় পদ্ধতিতে বিভিন্ন দেশে ক্ষমতার পালাবদল যেভাবে হয়, তা পর্যবেক্ষণ করতেও সচিবদের পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। গতকাল সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সম্মেলন কক্ষে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক ও মধ্যাহ্ন বিরতির পর নিয়মিত সচিব সভায় যোগদেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি দীর্ঘ সাড়ে তিন ঘণ্টা বৈঠক করেন। গত পৌনে পাঁচ বছরে অনুষ্ঠিত ৬টি সচিব সভার মধ্যে গতকালই সবচেয়ে বেশি সময় দেন প্রধানমন্ত্রী। বৈঠকে সচিবরা তাদের কাজে ও মাঠ প্রশাসনের কার্যক্রমের বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার কথা তুলে ধরেন। এ সময় উঠে আসে প্রশাসনে কর্মরত কর্মকর্তাদের পদোন্নতি প্রদানের বিষয়টিও। একটি প্রজেক্টরের মাধ্যমে সরকারের নানা উন্নয়ন কর্মকাণ্ডও তুলে ধরা হয়। প্রধানমন্ত্রী গুরুত্বের সঙ্গে উন্নয়ন চিত্র দেখেন। পরে তিনি প্রত্যেক মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ দফতর ও অধিদফতরের সঙ্গে সমন্বয় করে জনস্বার্থে কার্যক্রম পরিচালনার নির্দেশ দেন। কোনো উন্নয়ন কার্যক্রম যাতে দীর্ঘসূত্রতায় আটকে না পড়ে সেদিকেও সজাগ দৃষ্টি রাখার জন্য সচিব সভায় বলেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া পদোন্নতি প্রদানের ক্ষেত্রে যোগ্য কর্মকর্তাদের তালিকা প্রণয়ন করে পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে।
সচিবদের ওই সভায় মন্ত্রিপরিষদের সচিবসহ মোট ২৩ সচিব বক্তব্য দেন। উপস্থিত ছিলেন ৫৮ সচিব। বৈঠকে সচিবরা দ্রুত স্থায়ী পে-কমিশন গঠনের কাজ শেষ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ জানান। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবাসনসহ বিভিন্ন ধরনের সমস্যার কথা তুলে ধরেন সচিবরা। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যদি তারা আগামী দিনে আবার ক্ষমতায় আসতে পারেন, তাহলে প্রশাসনিক ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরণ করা হবে। এজন্য সচিবদের মানসিকভাবে প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

শেয়ার করুন