আগামী নির্বাচনে সচিবদের সহযোগিতা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

0
52
Print Friendly, PDF & Email

সরকারের ধারাবাহিকতা রক্ষায় আমলাদের সহযোগিতা চেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগামী ২৭ অক্টোবর থেকে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত সংসদ বহাল থাকবে। তবে এ সময়ে কোনো অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে না। এ ছাড়া মন্ত্রিপরিষদ থাকবে এ পরিষদ কোনো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে পারবে না।
সোমবার বিকালে সচিবালয়ে সচিব সভায় একথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
একইসাথে আগামী জাতীয় নির্বাচনে সরকারের ধারাবাহিকতা রক্ষায় আমলাদের সহায়তা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার সচিবালয়ে প্রায় ৪ ঘন্টাব্যাপী সচিব সভায় তিনি এ আহবান জানান। প্রধানমন্ত্রী সচিবদের জানান, আগামী নির্বাচনে জয়ী হলে সকল ক্ষেত্রে ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণ করা হবে।
সরকারের শেষ সময়ে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর জনপ্রশাসন বিষয়ক উপদেষ্টা এইচটি ইমামসহ ৫৮ জন সচিব উপস্থিত ছিলেন। মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞার স্বাগত বক্তব্যের পর সভায় বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ২২ জন সচিব বক্তব্য রাখেন।
সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা সাংবাদিকদের জানান, সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বর্তমান সরকারের আমলে দর্শনীয় উন্নতির চিত্র তুলে ধরে এটিকে অব্যাহত রাখতে আমলাদের সহযোগিতা কামনা করেন।
সচিব জানান, গণতন্ত্র ও উন্নয়ন একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী এ ধারায় আরো জোরদারভাবে সম্পৃক্ত হতে সচিবদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।
তিনি বলেন, বিগত পৌনে পাঁচ  বছরে সন্ত্রাস জঙ্গিবাদ নির্মূুলে সরকারের সফলতা রয়েছে। যেখানে সচিবদেরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছিলো বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী।
বৈঠকে উপস্থিত সচিবের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, তারা স্থায়ী পে-কমিশন ও মহার্ঘভাতার দাবি প্রধানমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেন। বেসরকারি সেক্টরের সঙ্গে সরকারি সেক্টরের সামঞ্জস্য রেখে পে কমিশন নির্ধারনের বিষয়ে আলোচনা হয়। প্রধানমন্ত্রী সচিবদের বক্তব্য মনোযোগ সহকারে শোনেন এবঙ পে-কমিশন গঠন সরকারের সক্রিয় বিবেচনায় রয়ছ বলে জানান। প্রধানমন্ত্রী সচিবদের বলেছেন, আগামী ১৯ অক্টোবর থেকে ২৪ জানুয়রি পর্যন্ত সংসদ বহাল থাকবে, তবে কোন অধিবেশন বসবে না। এই সময়ে মন্ত্রীসভাও থাকবে তবে কোন সিদ্ধান্ত নেয়া হবে না। প্রধানমন্ত্রী আগামী নির্বাচনে আবার আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনকে সচিবদের সহযোগিতা কামনা করে বলেন যোগ্য কর্মকর্তাদের মূল্যায়ন করা হবে।
সচিব সভায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে খোলামেলা আলোচনার সুযোগ হয় উল্লেখ করে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, এখানে যখন প্রধানমন্ত্রী আসেন তখন সরাসরি কথা আদান প্রদান হয়। এখানে কোনো নির্ধারিত আলোচ্যসূচি থাকে না। যে কোনো বিষয় আলোচনা হতে পারে। এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পেশাদার আমলাদারিত্বের ক্ষেত্রে এটা খুবই দরকার। একজন সচিবের দীর্ঘ দিনের কাজের অভিজ্ঞতা থাকে যা সরকারের কাজের গতিকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করে।

শেয়ার করুন