যার মাথা থেকে পা পর্যন্ত নকল উড়ে যাওয়ার ভয় তাঁরই আছে : প্রধানমন্ত্রী

0
228
Print Friendly, PDF & Email

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু করেছিলেন। জিয়াউর রহমান জোর করে ক্ষমতা দখল করে সেই বিচার বন্ধ করে দেন। সেই খুনিদেরকে প্রধানমন্ত্রী, উপদেষ্টা বানান, রাজনৈতিকভাবে প্রতিষ্ঠা করেন। আল্লাহর রহমতে সেই বিচারের রায় শুরু হয়েছে।

শুক্রবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

বিএনপির নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি নাকচ করে সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার সংবিধান থেকে একচুলও নড়বে না।

তার ওই বক্তব্যের সমালোচনা করে গত ২০ অগাস্ট বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেন, “জনগণের আন্দোলনের বাতাসে গেলেই কিন্তু চুল উড়ে যাবে। এমন আন্দোলন হবে, চুল উড়ে দিশেহারা হয়ে যাবেন। চুল তো থাকবেই না, অস্তিত্ব নিয়ে টানাটানি পড়বে।”

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উদ্দেশে বলেছেন, তাঁর মাথায় কাপড় থাকে, মাথায় পরচুলও নেই। এ কারণে বাতাসে তাঁর চুল উড়ে যাওয়ার ভয় নেই। আমরা মাথায় পরচুলা নাই যে বাতাসে উড়ে যাবে। যা আছে আসলই আছে, নকল নাই। যার মাথা থেকে পা পর্যন্ত নকল উড়ে যাওয়ার ভয় তাঁরই আছে।

শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে সভামঞ্চে পৌঁছানোর পর ৫টা ৪০ মিনিটে বক্তব্য শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী। তার আগে বেলা সাড়ে ৩টার দিকে ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠের মধ্য দিয়ে সভঅর কার্যক্রম শুরু হয়।

মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ আজিজের সভাপতিত্বে জনসভায় আরও বক্তব্য রাখেন  সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু এমপি, তোফায়েল আহমেদ এমপি, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত এমপি, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি, সতীশ চন্দ্র রায়, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, আইন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, ঢাকা-১২ আসনের সংসদ সদস্য ফজলে নুর তাপস প্রমুখ।

শেয়ার করুন