সংলাপের জন্য সব সময় প্রস্তুত : খালেদা

0
36
Print Friendly, PDF & Email

তত্ত্বাবধায়ক সরকার ইস্যুতে সরকারের সঙ্গে সংলাপ বা আলোচনায় বসতে সব সময়ই প্রস্তুত বলে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুনকে জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তবে বর্তমান সরকারের অধীনে কোন নির্বাচনে যাবেন না বলেও জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন। গতকাল সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটে জাতিসংঘ মহাসচিব বিএনপি চেয়ারপারসনকে টেলিফোন করেন। টেলিফোনে তাদের মধ্যে বাংলাদেশের আগামী জাতীয় নির্বাচন ও সার্বিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা হয়।

প্রায় আধা ঘণ্টাব্যাপী আলোচনায় বিএনপি চেয়ারপারসন জাতিসংঘ মহাসচিবকে বলেছেন, তিনি (খালেদা জিয়া) নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চান। সব দলের অংশগ্রহণে নির্বাচন চান। কিন্তু দলীয় সরকারের অধীনে কোন নির্বাচন হলে সেই নির্বাচনে যাবেন না।

গতকাল রাতে এ-সংক্রান্ত এক জরুরি সংবাদ সম্মেলন খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানান, জাতিসংঘ মহাসচিব খালেদা জিয়াকে বলেছেন, জাতিসংঘ দেশে সব দলের অংশগ্রহণে সুষ্ঠু নির্বাচন চায়। সেই সঙ্গে জাতিসংঘ

মহাসচিব সরকার ও বিরোধীদলের সঙ্গে সংলাপের বিষয়ে গুরুত্ব দিয়েছেন। এর জবাবে খালেদা জিয়া বলেছেন, সংলাপ বা আলোচনার জন্য তিনি সব সময়ই প্রস্তুত আছেন। কিন্তু সরকার এ ব্যাপারে কোন উদ্যোগ নিচ্ছে না।

সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল জানান, খালেদা জিয়া জাতিসংঘ মহাসচিবকে বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য নির্দলীয় সরকারের কোন বিকল্প নেই। সেই সঙ্গে একটি শক্তিশালী নির্বাচন কমিশনও জরুরি।

এর পরিপ্রেক্ষিতে বান-কি মুন বলেন, আগামী নির্বাচন যাতে সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে হয়, সেজন্য আমি উদ্যোগ নিয়েছিলাম। কিন্তু সেই প্রচেষ্টা বেশি দূর এগোয়নি। জাতিসংঘ মহাসচিব খালেদা জিয়াকে আরও বলেন, বাংলাদেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘ উদ্বিগ্ন। জাতিসংঘ বাংলাদেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিরোধীদলীয় নেতার একান্ত সচিব এএসএম সালেহ আহমেদ, বিরোধীদলীয় নেতার সহকারী একান্ত সচিব সুরাতুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন