কিশোরীকে যৌন নির্যাতন করেছে ‘ধর্মগুরু’

0
50
Print Friendly, PDF & Email

ভারতের স্বঘোষিত ধর্মগুরু আশারাম বাপুর বিরুদ্ধে এক কিশোরীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ ওঠেছে। ওই ঘটনায় কিশোরীর বাবার করা মামলায় আশারাম বাপুকে গ্রেপ্তার করেছে দিল্লি পুলিশ। এদিকে আশারাম বাপুকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে থানার বাইরে বিক্ষোভ দেখিয়েছে তার ভক্তরা। এসময় তারা সাংবাদিকদের লাঞ্ছিত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
 
ইন্ডিয়া টুডের এক খবরে বলা হয়, সপ্তম শ্রেণীতে পড়ুয়া ১৬ বছর বয়সী ওই কিশোরীর মধ্যে সম্প্রতি কিছুটা অস্বাভাবিক আচরণ দেখা দেয়। এসময় তার শিক্ষকদের পরামর্শে তাকে আশারাম বাপুর আশ্রমে নিয়ে যাওয়া হয়্। ধারণা করা হয়েছিল, ধর্মগুরু আশারাম বাপুর কাছে মেয়েটি তার স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যেতে পারবে। কারণ, ভারতীরা আধ্যাত্মিকতাকে এখনও দ্বৈব বলে ধরে নেন। গত সপ্তাহে যোধপুরে আশারাম বাপুর আশ্রমে নিয়ে যাওয়া হয় মেয়েটিকে। এসময় আশারাম বাপু চিকিৎসার নাম করে একা একটি ঘরে নিয়ে যান। কিশোরীর অভিযোগ ওই সময় বাপু তাকে যৌন নির্যাতন করেন। পরে কিশোরী বাইরে এসে তার বাবা-মাকে বিষয়টি বলে। কিন্তু আশারাম বাপুর দাবি সে এখনও মানসিকভাবে পুরোপুরি সুস্থ নয়। তাই এসব বলছে।  
 
ওই ঘটনার পর গত ১৭ আগস্ট মা-বাবার সঙ্গে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ জানান ওই কিশোরী। কিশোরীর বাবা জানিয়েছেন, রাজস্থানের কোনও থানা তাঁদের অভিযোগ নিতে রাজি হয়নি। তাই সোমবার তাঁরা দিলি্ল এসেছেন অভিযোগ দায়ের করার জন্য। ৭২ বছরের এই স্বঘোষিত ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ (ধর্ষণ), ৫০৯ (মহিলাদের সম্মানহানি) ও ৩৫৪ (মহিলাদের যৌন লাঞ্ছনা) ধারায় মামলা রুজু হয়েছে রাজধানীর কমলা মার্কেট থানায়।
 
দিল্লি পুলিশ অবশ্য বলেছে, বিষয়টি স্পর্শকাতর। মামলাটির সঙ্গে ধর্মীয় যোগ থাকায় খুব সাবধানে পদক্ষেপ করতে হবে। তাই যুগ্ম পুলিশ কমিশনার তেজেন্দ্র লুথরা নিজে মামলাটির তদারকি করছেন। তদন্ত করছেন প্রমোদ যোশী। তবে যেহেতু ঘটনাটি রাজস্থান পুলিশকেই হস্তান্তরিত করা হবে। যদিও ডিসিপি আলোক কুমার মামলাটির বিষয়ে স্বঘোষিত ধর্মগুরু আশারাম বাপুকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেন বলে জানা গেছে।
 
এদিকে স্বঘোষিত ধর্মগুরু আশারাম বাপুর মন্তব্যকে ‘অযৌক্তিক’ বলে দাবি করল দিল্লির নির্যাতিতার পরিবার। নির্যাতিতার ভাই বলেছেন “আশারাম বাপুকে আমরা শ্রদ্ধা করতাম। ওনার কয়েকটি বইও আমাদের বাড়িতে আছে। কিন্তু দিল্লি ফিরে গিয়েই আমরা সেগুলো জ্বালিয়ে দেব।”

শেয়ার করুন