‘শিক্ষকদের আন্দোলন অনৈতিক, রাষ্ট্রপতি চাইলে পদত্যাগ করব

0
83
Print Friendly, PDF & Email

জাবি সংবাদদাতা : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন বলেছেন, “শিক্ষকদের আন্দোলন অনৈতিক। তবে সংকট সমাধানে রাষ্টপতি চাইলে আমি পদত্যাগ করব।” শুক্রবার সকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, “আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাচিত উপাচার্য। এখানে আাামকে রাষ্ট্রপতি নিয়োগ দিয়েছেন। তিনি চাইলে অবশ্যই আমি সরে যাবো।” এ আন্দোলন বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাক্ট ১৯৭৩-এর গণতান্ত্রিক চেতনাবিরোধী বলেও মন্তব্য করেন ড. আনোয়ার হোসেন।

এদিকে উপাচার্যকে টানা তিন দিন ধরে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন ‘সাধারণ শিক্ষক ফোরাম’ ব্যানারে আন্দোলনরত শিক্ষকরা। বুধবার বেলা ১১টা থেকে নিজ কার্যালয়ে এখনো পর্যন্ত তাকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে শিক্ষকরা। এ ঘটনায় উদ্ভূত সংকট নিরসনের জন্য রাষ্ট্রপতিকে বৃহস্পতিবার উপাচার্য চিঠি দিলেও এখনো পর্যন্ত কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

শুক্রবার শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ আন্দোলনরত আওয়ামীপন্থি শিক্ষকদের ডাকতে পারেন বলে বিভিন্ন সুত্রে জানা গেছে। এছাড়া গত দুদিন ধর্মঘট শেষে আবারো শনি থেকে সোমবার সর্বাত্মক ধর্মঘটের ডাকা দিয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষকরা। একইসঙ্গে উপাচার্য পদত্যাগ না করা পর্যন্ত অবরোধ কর্মসূচি চলবে বলে তারা জানিয়েছেন। তবে ধর্মঘট চলাকালীন সময়ে পরিবহন, পূর্বঘোষিত পরীক্ষা, জরুরি অন্যান্য কার্যক্রম ধর্মঘটের আওতামুক্ত থাকবে।

শিক্ষক ফোরামের আহ্বায়ক অধ্যাপক হানিফ আলী বলেন, “আমরা নির্দিষ্ট অভিযোগ ও নিয়মতান্ত্রিক উপায়ে আন্দোলন করছি। অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন নৈতিকভাবে উপাচার্য পদে থাকার অধিকার হারিয়েছেন।” এজন্য এ সংকট থেকে একমাত্র তার পদত্যাগই সমাধান।

শেয়ার করুন