হাজারো সিরীয় শরণার্থী ইরাকে প্রবেশ করছে : জাতিসংঘ

0
73
Print Friendly, PDF & Email

সিরিয়া থেকে হাজার হাজার শরণার্থী সীমান্ত অতিক্রম করে ইরাকের কুর্দিস্তানে প্রবেশ করছে। জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা গতকাল এ তথ্য জানিয়েছে। জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা জানায়, গত শনিবার সিরিয়া-ইরাকের মধ্যকার পেশখাবর সীমান্ত অতিক্রম করে ১০ হাজারের বেশি শরণার্থী প্রবেশ করেছে। একই সীমান্ত দিয়ে বৃহস্পতিবার সাত হাজার শরণার্থী প্রবেশ করেছে। সংবাদকর্মীরা জানান, এসব শরণার্থীর আশ্রয়ের ব্যবস্থা করতে জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা, কুর্দিস্তানের আঞ্চলিক সরকার ও বেসরকারি সংস্থার কর্মীদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। কী কারণে হঠাত্ কুর্দিস্তানে শরণার্থী প্রবাহ বৃদ্ধি পাবে, সে বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছুই জানা যায়নি। সিরীয় কুর্দ নাগরিক ও সরকারবিরোধী ইসলামী শক্তিগুলোর অভ্যন্তরীণ সংঘাত বেড়ে যাওয়ায় শরণার্থী প্রবাহ বেড়ে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থার প্রধান জানান, ২০১১ সালে সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে এটি সবচেয়ে বেশি পরিমাণে শরণার্থী প্রবাহ। পার্শ্ববর্তী লেবানন থেকে বিবিসির প্রতিনিধি জিম মুইর বলেছেন, সাম্প্রতিক সময়ের শরণার্থীরা সপরিবারে দেশান্তরী হচ্ছে। বিশেষ করে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চল থেকে তারা বেশি পরিমাণে আসছে। প্রসঙ্গত, প্রায় দেড় লাখ নথিভুক্ত শরণার্থী যুদ্ধ শুরুর পর থেকে ইতোমধ্যে দেশান্তরী হয়েছে। তবে বেসরকারি সূত্র দাবি করেছে, প্রকৃত সংখ্যা তিন লাখকেও ছাড়িয়ে গেছে। জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরের আগ পর্যন্ত সাড়ে সাতশ’ শরণার্থী সীমান্ত অতিক্রম করতে দেখেছে তাদের কর্মীরা। তবে সন্ধ্যা পর্যন্ত সেই সংখ্যা ৭ হাজারকে ছাড়িয়ে গেছে বলে তাদের ধারণা। শুক্রবার সংস্থাটির মুখপাত্র আদরিয়ান এডওয়ার্ড বলেছেন, কী কারণে হঠাত্ শরণার্থী প্রবাহ বেড়ে গেল তা এখনও সুস্পষ্ট নয়। বিবিসি।

শেয়ার করুন