সরকারের ব্যাংক ঋণ সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা

0
52
Print Friendly, PDF & Email

অর্থবছরের শুরুতে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে সরকারের ঋণ নেওয়া অব্যাহত রয়েছে। অর্থবছরের প্রথম মাসে (৩১ জুলাই) বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার ঋণ নিয়েছে। গবেষণা বিভাগের ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে সরকারের ঋণ পরিস্থিতির হালনাগাদ প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, অর্থবছরের প্রথম মাসে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে সরকারের নিট ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ১৫ হাজার ৮৬৪ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। যা ৩০ জুন ২০১৩-এ ছিল ১ লাখ ১৫ হাজার ৭৭৯ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। সেই হিসাবে চলতি অর্থবছরে সরকার মাত্র ৮৪ কোটি ৭৩ লাখ টাকা বেশি ঋণ নিয়েছে। চলতি অর্থবছরে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে সরকারের ঋণের লক্ষ্যমাত্রা বাজেটে ২৫ হাজার ৯৯০ কোটি টাকার নির্ধারণ করেছে। ৩১ জুলাই পর্যন্ত সরকার ৩ হাজার ৪৯৫ কোটি ৬১ লাখ টাকা ঋণ নিয়েছে। সদ্যসমাপ্ত অর্থবছরের মতো চলতি অর্থবছরেও বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো থেকে সরকারের ঋণ নেওয়ার প্রবণতা অনেক বেশি। ৩০ জুনের তুলনায় ৩১ জুলাই ২০১৩-এ সরকার বাংলাদেশ ব্যাংকের ৩ হাজার ৪১০ কোটি ৮৯ লাখ টাকার ঋণ পরিশোধ করেছে। আর সেই সময়ে তফসিলি ব্যাংকগুলো থেকে সরকার ৩ হাজার ৪৯৫ কোটি ৬১ লাখ টাকা বেশি ঋণ নিয়েছে বলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মকর্তারা জানান।
বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহ উদ্দিন আহমেদ এ প্রসঙ্গে বলেন, বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নে সরকারের ব্যয় বাড়ায় সরকার এ ঋণ নিচ্ছে। নির্বাচনী বছরে সরকার তার ইশতেহার অনুযায়ী কাজ করার চেষ্টা দেখায়। আর এ কারণে বিভিন্ন উত্স থেকে ধার করার পরিমাণ বাড়ে। ব্যাংকগুলোর তারল্য সঙ্কট না থাকায় ঋণ সরকারি খাতে দিলে তাতে খুব একটা অসুবিধা নেই। তিনি বলেন, সরকারের চাহিদামাফিক ঋণের ৬০ শতাংশ পিডি ব্যাংক পূরণ করার পর বাকি ৪০ শতাংশ নন-পিডিদের ঋণ দিতে হয়। বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর ওপর সরকারের ঋণের অধিকাংশ চাপানোর এ সুযোগটা কাজে লাগাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক।
বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা জানান, ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে সরকার বেশি ঋণ নিলেও তাতে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। কেননা বেসরকারি খাতে ঋণ চাহিদা কম থাকায় সরকারের চাহিদার পুরোটাই এখন সরবরাহ করছে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো।
বাংলাদেশ ব্যাংকের গবেষণা বিভাগের অর্থ ও ব্যাংকিং উপ-বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, ৩ থেকে ২৪ জুলাই ২০১৩ পর্যন্ত ইস্যুকৃত ৫, ১০, ১৫ এবং ২০ বছর মেয়াদি বিজিটি বন্ডের ১ হাজার ৩০৬ কোটি ৬৬ লাখ, ১৬ জুলাই পরিশোধিত পাঁচ বছর মেয়াদি বিজিটি বন্ডের ওপর ৩৩১ কোটি ৮ লাখ, ২ জুলাই পরিশোধিত ২৫ বছর মেয়াদি বিশেষ ট্রেজারি বন্ডের (জুট) ২ কোটি ২৭ লাখ টাকা সমন্বয় করে সরকার এ ঋণ নিয়েছে।
উল্লেখ্য, সদ্যসমাপ্ত অর্থবছরে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে ২৪ হাজার ৭৭৬ কোটি টাকা নিট ঋণ নিয়েছে সরকার। ওই সময়ে ঋণের লক্ষ্যমাত্র ছিল ২৩ হাজার কোটি টাকা। সেই হিসাবে সরকার ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে লক্ষ্যমাত্রার দুই হাজার কোটি টাকা বেশি ঋণ নিয়েছে। তবে এই ঋণ সংশোধিত বাজেটের লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় কম। কেননা চলতি অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার সময় সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রা বাড়িয়ে ২৮ হাজার ৫০০ কোটি টাকা করা হয়েছে।

শেয়ার করুন