হলমার্ক চেয়ারম্যানের জামিন বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে গেল দুদক

0
44
Print Friendly, PDF & Email

রতি মাসে ১০০ কোটি টাকা করে পরিশোধ করার শর্তে নিম্ন আদালত থেকে জামিন পাওয়া হলমার্ক গ্রুপের চেয়ারম্যান ও এমডি তানভীর মাহমুদের স্ত্রী জেসমিন ইসলামের জামিন বাতিলে হাইকোর্টে আবেদন করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তার বিরুদ্ধে মোট ১১টি মামলার মধ্যে কেবল একটিতে জামিন বাতিল চাওয়া হয়েছে আবেদনে। গতকাল মঙ্গলবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদনটি দায়ের করেন দুদকের আইনজীবী অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান। গত ৪ আগস্ট দেশের ইতিহাসে বৃহত্তম ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় দুদকের দায়ের করা ১১টি দুর্নীতি মামলায় জেসমিন ইসলামকে জামিন দেন ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ জহুরুল হক। আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, প্রতি মাসে ১০০ কোটি টাকা ফেরত দেয়ার শর্তে ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ ১১ মামলার আসামি জেসমিনের জামিন মঞ্জুর করেন। নিম্ন আদালতের দেয়া ওই জামিন বাতিলের জন্য দুদকের প থেকে উচ্চ আদালতে আপিল করা হয়েছে। তিনি বলেন, এর আগে গত ৭ ফেব্রুয়ারি আরো একবার নিম্ন আদালত জেসমিনকে জামিন দেন। পরে উচ্চ আদালতে আপিল করে ওই জামিন বাতিল করতে হয়েছে। গত ১০ ফেব্রুয়ারি নিম্ন আদালতের জামিন আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট করা হলে ১১ ফেব্রুয়ারি জেসমিনের জামিন কেন বাতিল করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়। এ ছাড়া ১১ মামলায় জামিনের নথিপত্রও তলব করেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি জেসমিন ইসলাম যাতে দেশত্যাগ না করতে পারেন, সে জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন। ১৮ ফেব্রুয়ারি জজ জহুরুল হককে হাইকোর্টে হাজির হতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। জামিনের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে ওই আদালতের প্রসিকিউটরকেও নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। ওই দিনই বিচারক জহুরুল হক জেসমিন ইসলামের জামিন আদেশ বাতিল করেন। এরপর হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে জেসমিন ইসলাম আপিল বিভাগে আবেদন করেন। পরে আপিল বিভাগে তার এ আবেদন এবং হাইকোর্টে তার জামিনের আবেদন নামঞ্জুর হয়। সোনালী ব্যাংকের রূপসী বাংলা হোটেল শাখা থেকে মোট দুই হাজার ৬৮৬ কোটি ১৪ লাখ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে গত ৪ অক্টোবর হলমার্ক গ্রুপের এমডি তানভীর মাহমুদ ও তার স্ত্রী চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলামসহ ২৭ জনকে আসামি করে ১১টি মামলা করে দুদক।

শেয়ার করুন