দালালের খপ্পড়ে পড়ে গৃহবধূ পতিতালয়ে

0
466
Print Friendly, PDF & Email

ফরিদপুর শহরের রথখোলা যৌনপল্লী থেকে পুলিশ ১৯ বছরের এক গৃহবধূকে উদ্ধার করেছে। পুলিশকে উদ্ধারে সহযোগিতা করেন বাংলানিউজের ফরিদপুর প্রতিনিধি রেজাউল করিম বিপুল ও বেসরকারি টেলিভিশন গাজী টিভির ফরিদপুর প্রতিনিধি মনির হোসেন।
 
সোমবার বিকেলে সাড়ে ৫টার দিকে ওই পল্লীর দালাল নারায়ণের বাড়ির ২য় তলা থেকে তাকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
 
উদ্ধার হওয়া গৃহবধূর মা জানান, তাদের গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায়। তারা কাজের সন্ধানে এসে রাজধানী ঢাকার কামরাঙ্গীচরের একটি বস্তিতে থাকেন। তার মেয়ের বিয়ে হয়েছে। তার পাঁচ বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

তিনি বলেন, চার মাস আগে ফুলমতি তার স্বামীর সঙ্গে রাগ করে বাড়ি থেকে বের হয়। পরে তিনি ঢাকার গুলিস্তান এলাকার গোলাপ শাহের মাজার থেকে দালালের খপ্পড়ে পড়েন।
দালালরা তাকে ফরিদপুর শহরের রথখোলা যৌনপল্লীতে এনে বিক্রি করে দেন।

এ ব্যাপারে তিনি ঢাকার শাহবাগ থানায় একটি জিডি করেন। কিন্তু মেয়ের কোনো খোঁজ পাননি। পরে তিনি ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদকের কাছে মেয়ের সন্ধানে সহযোগিতা চেয়ে একটি চিঠি লেখেন।

এদিকে এক সপ্তাহ আগে তরুণী ওই গৃহবধূ কৌশলে তার মায়ের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলে রথখোলা যৌনপল্লীতে তার অবস্থান জানান। খবর পেয়ে তিনি সোমবার ফরিদপুরে এসে বাংলানিউজের ফরিদপুর অফিসে যোগাযোগ করলে বাংলানিউজের স্টাফ করেসপন্ডেন্ট রেজাউল করিম বিপুল ও গাজী টিভির ফরিদপুর প্রতিনিধি মনির হোসেন পুলিশের সহযোগিতা চান।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) সোহেল রানা জানান, বিকেল চারটা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে গৃহবধূকে উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

তিনি বলেন, উদ্ধার অভিযানের পুরো সময় গাজী টিভির মনির হোসেন এবং বাংলানিউজের রেজাউল করিম বিপুল পুলিশের সঙ্গে ছিলেন।

শেয়ার করুন