হেফাজত নিজেই ১৩ দফা মানে না দাবি চরমোনাই পীরের

0
51
Print Friendly, PDF & Email

হেফাজতের ১৩ দফা হেফাজতই মানে না দাবি করে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির মুফতি সৈয়দ মো. রেজাউল করীম চরমোনাই পীর বলেছেন তারা বেপর্দা হয়ে ইফতার করে৷

শনিবার ইসলামী আন্দোলন ঢাকা মহানগরীর ‘ঐতিহাসিক বদর দিবসের তাত্‍পর্য’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে তিনি এমন দাবি করেন৷

রেজাউল করীম বলেন, রাজনৈতিকভাবে যারা দেউলিয়া, যাদের রাজনৈতিক ভিত নেই এবং যাদের সুনির্দিষ্ট কোনো লক্ষ্য নেই তারাই কেবল জোট মহাজোটের রাজনীতির চর্চা করে৷

ইসলামী দলগুলোর প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, শরীয়তের গুরুত্বপূর্ণ বিধান পর্দাকে জলাঞ্জলী দিয়ে বেপর্দা হয়ে একসাথে ইফতার করে৷ ইসলাম কারো কাছে মাথা নত করে না, তাগুত ও ইসলামবিরোধী শক্তির সঙ্গে আপোস করে কখনো ইসলাম হয় না৷

চরমোনাই পীর বলেন, ৪২ বছর ধরে ইসলামী দলগুলো, ওলামায়ে কেরাম ব্যবহার হয়ে আসছে৷ প্রয়োজনে রক্ত ও জীবন দিচ্ছে৷ কিন্তু ফল যাচ্ছে ঘুরে ফিরে ইসলামবিরোধী শক্তি ও পরীক্ষিত দুর্নীতিবাজদের হাতে৷

তিনি দাবি করে বলেন, হেফাজতের ১৩ দফা হেফাজতই মানে না৷ তারা বেপর্দা হয়ে ইফতার করে৷ অথচ তাদের প্রথম দফাই হলো নারী-পুরুষের অবাধ মেলামেশা বন্ধ করা৷ কিন্তু তারা নিজেরাই তা মানছে না৷

রেজাউল করীম বলেন, হেফাজতের ১৩ দফা বিএনপি ও আওয়ামী লীগ কেউ মানে না৷ ইসলামী আন্দোলন ১৩ দফা বাসত্মবায়নে মাঠে কাজ করে যাচ্ছে৷ ১৩ দফার বাসত্মবায়ন চাইলে সহীহ ইসলাম প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে সম্পৃক্ত হতে হবে৷

তিনি বলেন, কুরআনের কথা বললে আমাদেরকে জঙ্গিবাদ ও মৌলবাদ আখ্যা দেয়া হয়৷ আসল মৌলবাদ বা জঙ্গীবাদ হলো আমেরিকা, ইংল্যান্ড ও ভারত৷ আমরা কুরআনের কথা বলি এবং বলবো; এতে আমাদের রক্ত ও জীবন দিতে হলেও আমরা রাজি৷

চরমোনাই পীর বলেন, ৯০ ভাগ মুসলমানের দেশে সরকার আলস্নাহর ওপর আস্থা তুলে দেয় তা নিয়ে আমাদের ভাবতে হবে৷ বদরের চেতনা মুসলমানের মধ্যে নেই বিধায় ইসলামবিরোধী শক্তিগুলো মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে৷

তিনি বলেন, আজ ইসলাম ও মানবতা আক্রানত্ম৷ কুরআন বিরোধী নারীনীতি, শিক্ষানীতি অনুমোদন হয়৷ ইসলামের অবিচ্ছেদ্য অংশ বোরকা নিষিদ্ধ হয়৷ ৯০ ভাগ মুসলমানের দেশে এর চেয়ে নির্মম পরিহাস কি হতে পারে৷

মহানগর সভাপতি অধ্যাপক হাফেজ মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিনের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন- সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিলস্নাহ আল-মাদানী, মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, সহকারী মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান প্রমুখ৷

শেয়ার করুন