গোলাম সবুর টুলু চিরনিদ্রায় শায়িত

0
74
Print Friendly, PDF & Email

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত বরগুনা-২ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম সবুর টুলু। গতকাল পৃথক ৪ দফায় জানাযা শেষে বিকাল ৪টায় তাকে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়। এর আগে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ অ্যাডভোকেট, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ বিভিন্ন স্তরের ব্যক্তিবর্গ মরহুমের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
সরকারদলীয় সংসদ সদস্য মরহুম টুলুর প্রথম জানাযা সকাল ৭টায় তার মালিকানাধীন সাভারের মধুমতি টাইলস ফ্যাক্টরির সামনে অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী, মরহুমের প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও স্থানীয় লোকজন অংশ নেন। এরপর তার মালিকানাধীন অপসোনিন ফার্মার ইস্কাটনের প্রধান কার্যালয়ের সামনে আরেক দফা জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। বেলা সাড়ে ১১টায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় তৃতীয় দফায় জানাযা হয়। এই জানাযায় রাষ্ট্রপতি, মন্ত্রিসভার সদস্য, সরকারি ও বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা অংশ নেন। জাতীয় সংসদ প্রাঙ্গণে জানাযার পর রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষে বিরোধী চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক, সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, স্পিকারের পক্ষে ডেপুটি স্পিকার কর্নেল (অব.) শওকত আলী, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা মরহুমের কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।
এখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে প্রতিক্রিয়াকালে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, আমাদের সড়কগুলোতে গাড়ির চাপ বেড়ে যাওয়ায় দুর্ঘটনাও বেড়েছে। তাই এটা বন্ধে সরকার পদক্ষেপ নিয়েছে।
বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক বলেন, যে হারে সড়ক দুর্ঘটনা হচ্ছে এর কারণ আজ পর্যন্ত কোনো সরকারই খুঁজে বের করতে পারেনি। প্রতিনিয়তই সড়ক দুর্ঘটনা বেড়ে চলছে।
তিনি বলেন, গাড়ির ও ড্রাইভারদের লাইসেন্স প্রদানে কঠোর হওয়া দরকার। এভাবে আর যেন কোনো সহকর্মীর হারিয়ে যেতে না হয়।
জাতীয় সংসদে জানাযা শেষে মরহুমের মরদেহ হেলিকপ্টারযোগে তার নির্বাচনী এলাকা বরগুনায় নেয়া হয়। তাকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি দুপুর পৌনে ২টায় পাথরঘাটার জিয়া মাঠে অবতরণ করার পর সরাসরি মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় পাথরঘাটা কেএম মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে। কিছু সময় পর দুপুর ২টায় সেখানেই তার চতুর্থ নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। জানাযায় জাতীয় সংসদের হুইপ আ.স.ম ফিরোজ, সংসদ সদস্য ডা. আনোয়ার হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতারা, আত্মীয়-স্বজনসহ সর্বস্তরের লোকজন উপস্থিত ছিলেন। জানাযা শেষে সর্বসাধারণের দেখার জন্য খুলে দেয়া হয় তার কফিন। দুপুর পৌনে ৩টার দিকে তার মরদেহ নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে পাথরঘাটা ত্যাগ করে হেলিকপ্টারটি। পরে বিকাল ৪টার দিকে বনানী কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন করা হয়।
বরগুনা-২ আসনের (পাথরঘাটা-বামনা-বেতাগী) সংসদ সদস্য গোলাম সবুর টুলু পাথরঘাটা থেকে ঢাকায় ফেরার পথে শুক্রবার বিকাল সোয়া চারটার দিকে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন। তাকে বহনকারী গাড়িটি ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার চুমুরদি এলাকায় একটি কভার্ড ভ্যানকে সাইড দিতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

শেয়ার করুন